ব্রেকিংরাঙামাটিলিড

‘৬ দফা ছিলো বাঙালির মুক্তি ও অধিকার আদায়ের আন্দোলন’

১৯৬৬ সালের ৭ জুন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঘোষিত বাঙালি জাতির মুক্তির সনদ ৬-দফা দাবির পক্ষে এবং পূর্ব পাকিস্তানের স্বায়ত্বশাসনের দাবিতে দেশব্যাপী তীব্র গণআন্দোলনের সূচনা হয়। এ ৬ দফা আন্দোলন ছিলো বাঙালি জাতি নিজেকে ভিনদেশি শত্রুদের থেকে মুক্তি পাওয়ার ও তাদের অধিকার আদায়ের আন্দোলন বলে মন্তব্য করেন পার্বত্য বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সাবেক প্রতিমন্ত্রী ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দীপংকর তালুকদার।

বৃহস্পতিবার বিকালে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ রাঙামাটি জেলা শাখার আয়োজনে দলীয় কার্যালয়ে ৬ দফা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা এবং পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সভায় জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি হাজী কামাল উদ্দিন, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক রফিকুল মাওলা, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য আব্দুল ওয়াদুদ, জেলা পরিষদের চেয়াম্যান বৃষ কেতু চাকমা, জেলা যুবলীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাজাহান, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ চাকমা, জেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি রোকেয়া বেগম, সদর থানা ছাত্রলীগের সভাপতি নজরুল ইসলামসহ আরো অনেকে বক্তব্য রাখেন।

৬দফা দিবস বিষয়ে তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ পাকিস্তান কেন্দ্রীয় সরকারের শোষন-বঞ্চনার অবসানে স্বায়ত্তশাসনের দাবিতে ১৯৬৬ সালের ৭ জুন দিনব্যাপী হরতাল আহ্বান করে। আওয়ামী লীগের ডাকা এ হরতালে টঙ্গী, ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জে পুলিশ ও ইপিআর’র গুলিতে মনু মিয়া, শফিক ও শামসুল হকসহ ১১ জন বাঙালি শহীদ হন। এরপর থেকেই বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে আপোষহীন সংগ্রামের ধারায় ঊনসত্তরের গণঅভুত্থানের দিকে এগিয়ে যায় পরাধীন বাঙালি জাতি। যার পূর্ণ রুপ আমরা দেখতে পাই মহান স্বাধীনতা সংগ্রামের মধ্য দিয়ে।

রমজান প্রসঙ্গে দীপংকর তালুকদার বলেন, বাংলাদেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানের জন্য রমজান মাসটি অত্যান্ত তাৎপর্যপূর্ণ। এই মাসে মানুষের যাতে কোনরকম ভোগান্তি পোহাতে না হয়, সেজন্য সকলকে আন্তরিক হতে হবে, এই মাসে সকলকে সহনশীল হতে হবে আর রোজা রেখে ধর্ম কর্মে মনোনিবেশ করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, আগামী ২৩জুন আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় উদ্বোধন করা হবে। তাই দিনটি উপলক্ষে রাঙামাটি আমারা বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছি। ঐ দিন আমরা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পনের মাধ্যমে আনন্দ র‌্যালী, আলোচনা সভা, সাংস্কৃতি অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করবো। সকলকে উপস্থিত থাকে কর্মসূচি সফল করার জন্য আহ্বান জানান তিনি।

আলোচনা সভার শেষে দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মাহ শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত ও আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের অংশগ্রহনে ইফতার মাহফিল অনুুষ্ঠিত হয়।

MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button