করোনাভাইরাস আপডেটখোলা জানালাব্রেকিংরাঙামাটি

হোম কোয়ারেন্টিনে ভালোবাসা

‘ভালোবাসা’ এ শব্দের সাথে জড়িয়ে আছে দুইটি দেহের দুইটি প্রাণের একটি মন। এ মন দিয়ে হয় যত ভালোবাসার কষাকষি। প্রেমের গাণিতিক সূত্রে ভালোবাসার অংক কষা। বর্তমানে ভালোবাসায় আছেন এমন তরুণ-তরুণীরা বড়ই বিপাকে পড়েছে ভালোবাসা নিয়ে। কারণ তাদের ভালোবাসা যে এখন ‘হোম কোয়ারেন্টাইনে’।
বিশ্ব জুড়ে এখন শুধু একটি মাত্র আলোচনার বিষয়, টিভি কিংবা অনলাইন খুলেই পাওয়া যায় সে আলোচিত বিষয়টি। যার নাম ‘করোনা ভাইরাস’। এ ভাইরাস আতংকে সারা বিশ্বের মানুষ এখন আতংকিত। বাংলাদেশেও  এ ভাইরাস আক্রমণ করেছে ইতিমধ্যে, তাই তো সারা বিশ্বের মত বাংলাদেশের মানুষও এখন ঘরবন্দি। স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় সহ সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং শপিংমল, পার্ক সহ সকল ব্যবসায়ি প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। তাদের সাথে বন্ধ হয়ে গেলো ভালোবাসা মানুষকে দেখার সুযোগ এবং ঘরবন্দি হয়ে গেলো ভালোবাসা।
ভালোবাসার মানুষকে না দেখে থাকাটা খুবই কষ্টের, তা কেবলই ভালোবাসার যুগল প্রেমিক-প্রেমিকারাই ভালো বলতে পারবে। ভালোবাসা মানুষের সাথে দেখা করতে কত বায়না, কত অজুহাত,  শত কষ্টে এবং চ্যালেঞ্জকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে একজন প্রেমিক-প্রেমিকা দেখা করেন, ভালোবাসা বিনিময় করেন। কিন্তু আজ সে বায়না, অজুহাত কিংবা চ্যালেঞ্জ কোন ভাবেই কাজে দিচ্ছে না করোনা ভাইরাসের কাছে। একটি ভাইরাস বন্ধ করে দিলো সব কিছু। দূরে সরিয়ে দিলো দুইটি দেহের দুইটি প্রাণকে। কিন্তু দূরত্ব সৃষ্টি করতে পারলো না দুইটি মনকে। কবি নির্মলেন্দু গুণ বলেছিলেন ‘ হাত বাড়িয়ে ছুঁই না তোকে, মন বাড়িয়ে ছুঁই’ তেমনই আজ কবির কথায় সত্য করে দিলো করোনা ভাইরাস। হাত বাড়িয়ে প্রিয় মানুষকে ছুঁতে না পারলেও ঠিকই মন বাড়িয়ে ছুঁয়ে আছে প্রতিটি প্রেমিক যুগল একে অন্যকে।
দেখা করতে না পারলে কি হবে এ ডিজিটাল যুগে কিছুটা হলেও হতাশা আর হা্ইহুতাশ থেকে রেহায় দিয়েছে ইন্টারনেট ও মোবাইল। আগের যুগে না হয় চিঠি লিখতে হতো সেটা ডাক যোগে মানুষের মাধ্যমে পাঠাতে হতো। আর দেখা করতে মানুষ বেচে নিতো কতশত কৌশল। সেকালে রাতের আঁধারেও দেখা করতো প্রায় প্রেমিক যুগল। কিন্তু এখন বর্তমান যুগে মুহুত্বে পত্র চলে যায় মোবাইলের ক্ষুদ্র বার্তার মাধ্যমে আবার প্রিয় মানুষকে দেখার জন্যে আছে ইন্টারনেটে অনেক সুব্যবস্থা। ইমু, ওয়াটএ্যাপ, ম্যাসেজ্ঞারে ভিডিও কলের মাধ্যে সহজেই প্রিয় মানুষকে দেখে নিচ্ছে এক পলকে প্রতিটি যুগল। ফেসবুক আরো সহজ করে দিয়েছে ভালবাসা আদান প্রদানকে। মার্ক জাকারবার্গ কে এ কারণে অনন্ত ভীষণ প্রিয় ‍যুগলদের।
করোনায় মানুষ ঘরবন্দি হোক আর যাই হোক, ভালোবাসার মানুষের সাথে যোগোযোগ বন্ধ করা যায় না। তাই তো হোম কোয়ারেন্টাইনে থেকেও যুগলরা ইন্টারনেটকে আজ  ভীষণ আপন করে নিয়েছে ভালোবাসার মানুষের সাথে যোগাযোগ রাখতে।
পৃথিবীর এ দুর্দিনে ভালোবাসার প্রতিটি মানুষ চিন্তায় আছেন তার ভালোবাসার মানুষটিকে নিয়ে। সকলে আশায় আছেন কোন এক ভোরে শুনা যাবে করোনা ভাইরাস আর নেই, ঘরবন্দি থাকতে হবে না কাউকে এবং আতংক নেই কোন কিছুতে। পৃথিবী আজ সুস্থ, আইসোলেশন থেকে ফিরে এসেছে পৃথিবী। তখন আবারও হোম কোয়ারেন্টাইন থেকে বের হয়ে আসবে ভালোবাসা। পৃথিবী জুড়ে ছড়িয়ে পড়বে প্রতিটি যুগল প্রেমিকের ভালোবাসা। ভার্চুয়াল থেকে বাস্তবে মিলন হবে প্রতিটি প্রেমিক যুগলের।
লেখক: সংবাদকর্মী
MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

এই সংবাদটি দেখুন
Close
Back to top button