খোলা জানালারাঙামাটিলিড

হাতেখড়ি পাহাড়েই

পাহাড় মানে শুধুই পাহাড় নয়, সাথে মিশে আছে রূপ, বৈচিত্র্য, হ্রদ ও মেঘের স্পর্শ। রয়েছে এখানেই নানান সংস্কৃতির রূপপ্রাবল্য। এযেন সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির মেলবন্ধন। পাহাড় মানে আমার কাছেই পাহাড় টোয়েন্টিফোরও।

১.
গল্পটা গল্প নয়, এক বাস্তবতা পাশাপাশি ইতিহাসও বটে। তাহলে শুরু করি এখানেই, ভাইয়ের সাথে পরিচয়টা ছিলো আগে থেকেই। পরিচয়টা তাও আবার অনলাইনে বলতে গেলেও ফেসবুকেই। সেদিনের তারিখটা ঠিক মনে নেই। পড়ন্ত বিকালে এসে বসে আছি পাহাড়ে, উনি আসলেন, কথা হলো,পরিচয়টাও আরও গাঢ় হলো।

ও আরেকটা কথা, আমার বছরে বেশি না একবার কিংবা দুই বারই আসা হতো রাঙামাটিতে। সকালে রওনা দিলে বিকালে এসে পৌঁছাতাম এই শহরে। সন্ধ্যায় পরপরই আসা হতো পাহাড়ে, দেখা হতো,কথা হতো….. জানা শোনা হতো এই পাহাড়ের কল্পকথা। বেশিদিন না গড়িয়ে আবার ফের চলে যেতাম নিজ গন্তব্যে।

২.
সময়টা ছিলো গেলো বছরের জুলাই মাসেরই। এই সময়টাতে এইচএসসি পরীক্ষা দিয়ে বেড়াতে এলাম রাঙামাটিতে। একদিন সন্ধ্যায় আড্ডা দিচ্ছিলাম পাহাড়ে। কথার ফাঁকে ভাই (সম্পাদক) বললেন পড়ালেখারর মাঝে দুই একটা ফিচার তো লিখতে পারিছ, হ্যাঁ সূচক মাথা নাড়ালাম। এরপর পর থেকেই শুরু করলাম হালকা লেখালেখির, যখন পত্রিকায় আমার দেয়া খবরটি ছাপা হতো তখন মনে মনে অনেকটাই স্বস্তি পেতাম। বলতে গেলে তখন থেকে আমিও হলাম পাহাড়ের আরেক সদস্য, আর আমার সাংবাদিকতার ‘হাতেখড়ি ও পাহাড়েই’।

৩.
শুরুতে কিছুটা নিজেকে ঝিমিয়ে রাখলেও সময়ের সাথে সাথে আরও দাঁপিয়ে চলার জন্য হলাম বদ্ধপরিকর। কিছু কথা না বললেই নয়, গত বছরের আগস্টে কাপ্তাই হ্রদে ভবন ধসে নিহত হন মা ছেলেসহ চারজন। ঘটনার দিন রাত এগোরোটা পর্যন্ত এই শহর ও দেশ দুরান্তের মানুষকে বার্তা পৌঁছে দিয়েছিলো পাহাড় টোয়েন্টিফোর ডটকম। সেদিন মনে আরও প্রশ্ন জাগলো! আমি তো পারি আরও কাছে থেকে এই বার্তা মানুষকে পৌঁছে দিতে।

শুরু থেকেই এই পাহাড়ের সব সহকর্মীর সাথে চলেছি আমিও, কখনো কারো সাথেও হয়নি মত-দ্বিমত। তবে পাহাড়ের সাথে আরও বেশি নিবিড় হওয়ার পিছনে রয়েছেন অগ্রজ শংকর দা। আরও আছেন হেফাজত সবুজ ভাই, ইয়াছিন ভাই, জিয়া ভাই ও সাইফুল ভাই…..

৪.
বেড়ে উঠার সাথে সাথে ভুগেছি হিনমন্যতায়! পকেটে টাকা থাকলেও কখনো জানাশোনা থাকা স্বত্তে¡ও কোন নিউজ কাভার করা থেকেই বিরত থাকিনি। অনেকেই বলতেন দু-চার টাকা বেতন পেয়ে এই পেশায় থেকে কি লাভ! এর চেয়ে ভালো অন্য কিছু কর, টাকা পয়সা ভালোই রোজগার করতে পারবি। হিনমন্যতায় থেকেও নিজেকে কখনোই ছোট করে দেখিনি। কেননা আমিতো আমি অন্যের মতন তো না। এখন আমি পাহাড়ের পাশাপাশি কাজ করি একটি জাতীয় অনলাইন পোর্টালে। আর এই পেশায় নিজেকে হিনমন্যতা থেকে বিরত রাখতে সব সময়ই সাহস জুগিয়েছেন বড় ভাই ফজলে এলাহী।

৫.
২২ অক্টোবর পাহাড়ের জন্মদিন। গতবছরের ২২ই অক্টোবর এই দিনে আনন্দ উল্লাসের মধ্য দিয়ে পালিত হয় এই পোর্টালটির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। এবছর তেমন জমকানো আয়োজন না করলেও ঠিকই ভুলিনি এই দিনটিকে।

সকালের শহরে ঘুম থেকে উঠা আর রাতে ঘুমে বিভোর হওয়াতে পর্যন্ত এই পাহাড়ের কথা কখনোই ভুলতেই পারি না! কেননা এই পাহাড়েই, এই পাহাড় টোয়েন্টিফোর ডটকম-ই আমার হাতেখড়ি!

এই বিভাগের আরো সংবাদ

১টি কমেন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ten − eight =

Back to top button