ব্রেকিংরাঙামাটিলিড

হঠাৎ ঝড়ো হাওয়ায় বিদ্যুৎ বিপর্যয় জুরাছড়ি-বরকল-বিলাইছড়িতে

মৌসুমী ঝড়ো হাওয়ায় বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের কবলে পড়েছে রাঙামাটির তিন উপজেলা বরকল,বিলাইছড়ি ও জুরাছড়ি। কাপ্তাই উপজেলার চন্দ্রঘোনায় বারঘোনিয়া ফরেস্ট এলাকায় কাপ্তাই বিদ্যুৎ সঞ্চালন বিভাগের ৩৩ হাজার ভোল্টের লাইনের উপর বনবিভাগের এক গাছ উপড়ে পড়ায় এই সংকট তৈরি হয়েছে।’
চন্দ্রঘোনা ইউনিয়ন পরিষদের ১ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো: আবুল হাসেম জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার সকালে আকস্তিক ঝড়ে গাছ উপড়ে পড়ে বিদুৎ লাইনের উপরে, ফলে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়,সংযোগ স্থাপনে বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মীদের কাজ করতে দেখছি।’ এই জনপ্রতিনিধি আরো বলেন, ‘ ওই এলাকায় আরো কয়েকটি গাছ বেশ ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছে,এসব গাছ উপড়ে পড়লে আশেপাশে বাড়ীঘর ক্ষতিগ্রস্ত হবে এবং প্রাণহানি ঘটবে।’ তিনি ঝুঁতিপূর্ণ এসব গাছ কেটে নেবার জন্য বন বিভাগের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।

কাপ্তাই বিদ্যুৎ সরবরাহ বিভাগের আবাসিক প্রকৌশলী সুভাষ চৌধুরী জানিয়েছেন, ভোর ৫ টায় বন বিভাগের গাছ উপড়ে বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইনের উপর পড়লে বৃহস্পতিবার সকাল হতে বিলাইছড়ি,জুরাছড়ি এবং বরকল উপজেলায় বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ হয়ে গেছে। খবর পেয়ে সেখানে লোক পাঠানো হয়েছে। কাপ্তাই বিদ্যুৎ সরবরাহ বিভাগের কর্মীরা লাইন মেরামতের কাজ করছে, আশা করছি আজ বিকেল ৫ টার মধ্যেই এই ৩ উপজেলায় বিদ্যুৎ পুন: সংযোগ দিতে পারবো।

এই প্রকৌশলী, কাপ্তাই সড়কের লাইনের উপর থাকা ঝুঁকিপূর্ণ গাছ কেটে পেলার জন্য বন বিভাগের নিকট অনুরোধ করে বলেন, ‘না হলে ভবিষ্যৎতে বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে ।’

এদিকে বারঘোনিয়া ফরেস্ট বিটের দায়িত্ব প্রাপ্ত ফরেস্টার এস এম মাহাবুব আলম জানান, বিদ্যুৎ বিভাগের আবাসিক প্রকৌশলীর ফোন পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে রওনা করেছেন।’ কাপ্তাই উপজেলা প্রশাসনের মাসিক সমন্বয় মিটিং এর সিদ্বান্ত মোতাবেক কাপ্তাই সড়কে ঝুঁকিপূর্ণ গাছ কেটে ফেলা হয়েছে’ বলে দাবি করে তিনি বলেন, আর কোন গাছ যদি ঝুঁকিপূর্ণ থাকে সেটাও আমরা দেখব।

MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button