ব্রেকিংরাঙামাটিলিড

সড়ক দুর্ঘটনা রোধে ‘স্যালভেশন’র অসাধারন প্রচেষ্টা

যে কাজটি আইন ও নিয়ম মেনেই একটি গাড়ীর মালিক বা চালকের করার কথা,সেই কাজটি না হওয়ায় সড়কে বাড়ে দূর্ঘটনা,মৃত্যুর মিছিল। সেই অসচেতন মালিক-চালকদের কাজটিই স্বেচ্ছাশ্রমে করে দিলো রাঙামাটির স্বেচ্ছাসেবি সংগঠন স্যালভেশন।
সড়ক দুর্ঘটনা রোধে ট্রাফিক নিয়ম অনুসারেই গাড়ির হেডলাইটের উপরিভাগ রঙ করে দেয়া এবং ট্রাফিক আইন সচেতনতায় স্টিকার ও লিফলেট বিতরন করেছে রাঙামাটির স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটি । ‘জীবনের আগে জীবিকা নয়, সড়ক দূর্ঘটনা আর নয়” এই স্লোগানে শনিবার সকালে শহরের পৌরসভার সামনে সংগঠনটির এই কর্মসূচী উদ্বোধন করেন রাঙামাটির ট্রাফিক ইন্সপেক্টর মো: ইসমাইল।
এসময় তিনি বলেন, ‘ ট্রাফিক আইনে উচ্চ ভিমে বা লাইটে গাড়ি চালানো নিষেধ। তারপরও কিছু চালক এই আইন অমান্য করে। ফলে গাড়ি চালানোর সময় উচ্চ ভিমে লাইট দিয়ে গাড়ি চালালে গাড়ির সেই আলো সরাসরি অন্য গাড়ির চালকের চোখে পড়ে এবং তিনি এই আলোর ফলে রাস্তা স্পষ্ট ভাবে দেখতে পান না। আর এভাবেই একটি দূর্ঘটনার সূত্রপাত হয়।’
স্যালভেশনের এমন উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করে তিনি আরও বলেন, ‘আজকে স্যালভেশন যে কার্যক্রম হাতে নিয়েছে, এর ফলে দূর্ঘটনা অনেকাংশে কমে আসবে। কারণ হেডলাইট এর উপরের অংশ রং করার ফলে লাইটের আলো রাস্তার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে।ফলে চালকদের পথ চলতে আর সমস্যা হবে না।’
সংগঠনটির উপদেষ্টা ও বিয়াম ল্যাবরেটরি স্কুলের উপাধ্যক্ষ পারভেজুল ইসলাম সুমন সড়ক দুঘর্টনায় নিহত রাঙামাটি কলেজ ছাত্রী এশিচিং মারমা’র কথা উল্লেখ করে বলেন,‘নতুন ট্রাফিক আইন নিয়ে সবাইকে সচেতন করতে এবং রাতে গাড়ি চালানো আরো নিরাপদ করতে হেড লাইটের উপরের এক চতুর্থাংশ রঙকরন করার এ উদ্যোগ নিয়েছি আমরা।’
কর্মসূচীতে আরও উপস্থিত স্যালভেশন এর উপদেষ্টা হাসমত আলী,স্বপ্নদ্রষ্টা আইয়ুব ভূঁইয়া,সমন্বয়ক আজিজুল ইসলাম আরজু, সিনিয়র সদস্য আশরাফুল আলম, সহ স্যালভেশন ও ট্রাফিক পুলিশের সদস্যবৃন্দ।

MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

এই সংবাদটি দেখুন
Close
Back to top button