রাঙামাটিলিড

স্বীকৃতির দাবীতে স্বামীর বাসার সামনে অবস্থান নিয়েছে এক স্ত্রী

রাঙামাটি শহরের রিজার্ভবাজারে

 মিশু মল্লিক

রাঙামাটি শহরের ১ নং পাথরঘাটা এলাকায় স্ত্রীর ‘স্বীকৃতি পাওয়া’র দাবিতে স্বামীর বাসার সামনে অবস্থান নিয়েছেন সায়মা সুলতানা আইরীন নামের এক নারী। শুক্রবার (১৬ জুলাই) সকাল থেকে তিনি স্বামীর বাসার সামনে দাঁড়িয়ে আছেন। এই বিষয়ে সায়মা সুলতানা আইরিন বলেন, ‘ ২০১৮ সালের ১৩ ডিসেম্বর আবুল হাশেমের পুত্র নাজমুল সাকিব রাফির সাথে আমার বিয়ে হয়। প্রেমের বিয়ে হওয়ার কারণে প্রথমে সাকিবের পরিবার মেনে না নিলেও পরে আমাকে মেনে নেয়। কিন্তু গত ৩ বছর যাবৎ সাকিব এবং সাকিবের পরিবার আমার উপর অমানুষিক নির্যাতন চালিয়ে আসছিল।’

তিনি দাবি করেন, গত ১৩ দিন আগে ওরা আমাকে আমার বাপের বাড়ি পাঠিয়ে দিয়ে আমার স্বামী সাকিব ময়মনসিংহে চলে যায়। বাপের বাড়ি যাওয়ার পর থেকে ওরা আমার কোন খোঁজ খবর নেয়নি। আজ (শুক্রবার) সকালে আমি যখন আমার শশুর বাড়িতে ফেরত আসি, ওরা আমাকে বাড়িতে ঢুকতে দিচ্ছেনা। ওরা বিভিন্নভাবে আমাকে হুমকি দিচ্ছে।

এই ব্যাপারে স্বামী নাজমুল সাকিব রাফির সাথে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমার স্ত্রী আমার পরিবারের সাথে থাকতে রাজি নয়। তাই গত ৫ দিন আগে আমাদের দুই পরিবারের মধ্যে পারিবারিক বৈঠকের মাধ্যমে সিদ্ধান্ত হয় কোরবানি ঈদের পর থেকে আমরা আলাদা বাসায় থাকবো। যেহেতু আমার কোন আয় রোজগার নেই তাই দুই পরিবার আমাদের ৮ হাজার টাকা করে ১৬ হাজার টাকা দেয়ার কথা। কিন্তু এমন অবস্থায় আজ সকাল থেকে আমার স্ত্রী আমার বাসার সামনে অবস্থায় নেয়।

এই ব্যাপারে রাঙামাটি পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর করিম আকবর বলেন, দুই পরিবারকে নিয়ে বিষয়টি আমরা সমাধান করার চেষ্টা করছি। কিন্তু কোন পরিবার থেকেই তেমন ইতিবাচক সাড়া পাচ্ছিনা বলে আমরা আগাতে পারছি না। তাও আমরা সমাধানের চেষ্টা করছি।

১ নং এলাকার বাসিন্দা ছাত্রলীগ নেত্রী ফাতেমা তুজ জোহরা রেশমি বলেন, ‘আমরা সকাল থেকে খেয়াল করছি মেয়েটা তার শশুর বাড়ির বাসার সামনে এসে চিৎকার চেঁচামেচি করছে। কিন্তু তাঁর শশুর বাড়ির লোকজন তাঁকে ঘরে তুলছে না। এটার সুষ্ঠু সমাধান হওয়া উচিত। বিষয়টি ভালো দেখাচ্ছেনা।’

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button