ব্রেকিংরাঙামাটিলিড

স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা, নির্মাণ শ্রমিকের ১০ বছর কারাদণ্ড

রাঙামাটিতে

প্রান্ত রনি
রাঙামাটিতে দ্বিতীয় শ্রেণীর একছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা মামলায় আসামি মো. আবুল হোসেনকে (৪০) ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল। একইসঙ্গে ৫ লাখ টাকা অর্থদণ্ড এবং অনাদায়ে আরও ২ বছরের কারাদণ্ডের রায় দেয়া হয়েছে।

সোমবার (৮ ডিসেম্বর) দুপুরে রাঙামাটি জেলা ও দায়রা জজ আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক এ.ই.এম. ইসমাইল হোসেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ এর (৪) (খ) ও ১০ ধারায় এ রায় দিয়েছেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি মো. আবুল হোসেন পেশায় একজন নির্মাণশ্রমিক। সে জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলার মারিশ্যা ১ নম্বর ব্লকের মো. জামাল এর ছেলে। বর্তমানে রাঙামাটি জেলা শহরের আলম ডকইয়ার্ড এলাকার বাসিন্দা।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, ২০২০ সালের ২১ ডিসেম্বর রাঙামাটি জেলা শহরের আলম ডকইয়ার্ড এলাকার একটি বাসায় বাথরুমের দরজা পরিবর্তন করতে গিয়ে মামলার বাদীর দ্বিতীয় শ্রেণী পড়ুয়া শিশুকে ধর্ষণচেষ্টা করেন আবুল হোসেন। পরে ভিকটিমের চিৎকারে মামলার বাদীর ভগ্নিপতি মাস্টার এগিয়ে এলে অভিযুক্ত মো. আবুল হোসেন পালানোর চেষ্টা করে, তখন মাস্টার তাকে একটি কক্ষে আটকে রাখেন। পরবর্তীতে ভিকটিমের মা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন, সে মামলার প্রেক্ষিতে পুলিশ আসামিকে গ্রেফতার দেখায়। কোতোয়ালী থানার মামলা নম্বর ১২; তারিখ- ২১/১২/২০২০ ইং।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট মো. রফিকুল ইসলাম পাহাড় টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, ‘২০২০ সালের ধর্ষণচেষ্টার একটি মামলায় এক আসামিকে ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড, ৫ লাখ টাকা অর্থদণ্ড এবং অনাদায়ে আরও ২ বছর কারাদণ্ডের রায় দিয়েছেন জেলা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল।’

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 × two =

Back to top button