নীড় পাতা / ব্রেকিং / সেই গরুছাগল এখন সওজ’র কারখানায় !
parbatyachattagram

সেই গরুছাগল এখন সওজ’র কারখানায় !

রাস্তায় বাধা আছে গরু, চারিদিকে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে গোবর। আর এসব কারণে দুর্গন্ধ আর ব্যক্তি ভোগান্তির শিকার সাধারণ মানুষ। এ আর অন্য কোথাও নয়, খোদ পর্যটন নগরী রাঙামাটির বাস্তবচিত্র। আর এ ধরণের পরিস্থিতিতে ‘যেন দেখার কেউ নাই’ এমন স্টাইলেই নিরব ছিলেন পার্বত্য এই শহরের জনপ্রতিনিধি থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষও।

তবে এবার এই পরিস্থিতি থেকে সাধারণ মানুষকে স্বস্তি দিতে শহরের প্রধান সড়কে অবাধে বিচরণরত এসব গুরু-ছাগল ধরার অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে রাঙামাটি শহরের কলেজ গেইট, ভেদভেদী, টিএন্ডটি, তবলছড়ি , বনরূপা, রিজার্ভবাজার ডিসি বাংলো সড়কসহ বিভিন্ন স্থানে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসব তথ্য জানিয়েছেন, অভিযান পারিচালনার তত্ত্ব¡াবধানে দায়িত্বরত ও রাঙামাটি পৌরসভার ফিল্ড সুপারভাইজার বিপ্লব তালুকদার।

তিনি জানিয়েছেন, জেলা আইনশৃঙ্খলা মিটিং এর সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পৌর কর্তৃপক্ষের তত্ত্বাবধানে ও আনসার ভিডিপির সহযোগিতায় সড়কে অবাধে বিচরণরত এসব পশু ধরা হচ্ছে। আমাদের এ অভিযান আজ থেকে শুরু হয়েছে। অনিদিষ্টকাল পর্যন্ত এ অভিযান বলবৎ থাকবে।

বিপ্লব আরও জানান, সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ১৪ টি গরু ও ৫ টি ছাগল ধরা হয়েছে। আমাদের নিদিষ্ট খোয়াড় না থাকায় সড়ক ও জনপদ বিভাগের কারখানা এলাকায় পশুগুলোকে রাখা হচ্ছে। নির্ধারিত জরিমানা দিয়ে মালিকরা চাইলে সেগুলো ফেরত নিতে পারবেন। ’

এ ধরণের ইতিবাচক কাজের জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানিয়ে শহরের রাজবাড়ি এলাকার বাসিন্দা রবিন চাকমা বলেন, ‘জনসাধারণের সুবিধার্তে আমরা এ ধরণের কার্যক্রম চালানোর জন্য কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানাই। শহরের বনরূপা বাজারেও গরু-ছাগলের বিচরণের কারণে সাধারণ মানুষ অতিষ্ট। বিভিন্ন সময় রাস্তায় গোবর পড়ে থাকে। এছাড়া সড়কের মাঝ দিয়েও এসব পশু হাটাচলা করে। এতে করে সাধারণ মানুষের ভোগান্তির সাথে সাথে সড়ক দুর্ঘটনার ঝুঁকিও রয়েছে। এখন থেকে এ ধরণের কর্মকান্ড বলবৎ থাকলে জনসাধারণকে ভোগান্তি পোহাতে হবে না।’

Micro Web Technology

আরো দেখুন

পাড়াকর্মী সানুখই মারমার অসাধারণ কাজ

রাঙামাটির রাজস্থলী উপজেলার বাঙ্গালহালিয়া ইউনিয়নের ছাগলখাইয়া পাড়াকেন্দ্রের পাড়াকর্মী সানুখই মারমার সহযোগিতায় বন্ধ হলো বাল্যবিবাহ। পাড়াকর্মী …

Leave a Reply