পাহাড়ে নির্বাচনের হাওয়াব্রেকিংরাঙামাটিলিড

সাবেক মেয়র হাবিবকে তুলোধুনো করলেন শাহ আলম

‘দুই মেয়াদ আগের মেয়র হাবিবুর রহমান আমাকে নিয়ে মন্তব্য করেছেন আমি নাকি কালা চাকমা, কারো ঘরের মানুষ। ভাই..আমাকে নিয়ে কিছু বলার আগে নিজের কথা ভাবুন একবার, এই রাঙামাটির মানুষ আপনাকে কি সম্মান দিয়েছে। ছিলেনতো বিদ্যুতের খাম্বার মিস্ত্রী, সেখান থেকে আপনাকে পৌরসভার মেয়র বানিয়েছে , তারপরওতো গাট্টি রেডি করে রেখেছেন, যে কোন সময় যাতে গাড়িতে উঠতে পারেন। আপনার গায়ের চামড়া দিয়ে রাঙামাটিবাসীকে পাদুকা বানিয়ে দিলেও ঋন শোধ হবে না। অথচ আপনি খাটের নিচে খাটিয়াও রেখে দিয়েছেন, কিছু হলে যাতে দেহটা নিয়ে যায়। আপনাদের মুখে এগুলো মানায় না, আমি মরলে এখানকার গোরস্থানে আমার কবর হবে। ’
রাঙামাটি পৌরসভার সাবেক মেয়র হাবিবুর রহমানকে এমন তীক্ষ কথামালায় জর্জরিত করেছেন রাঙামাটি জেলা বিএনপির সভাপতি হাজী মোঃ শাহ আলম। হঠাৎ নির্বাচনী সভায় এমন আক্রমনের ঘটনার পেছনের ইতিহাস জানতে গিয়ে জানা গেলো,ইতোপূর্বে নৌকার একটি সভায় শাহ আলমকে ব্যক্তিগত আক্রমন করে বক্তব্য দিয়েছিলেন সাবেক মেয়র হাবিব,তারই জবাব দিয়েছেন বিএনপি সভাপতি। পাল্টাপাল্টি কথামালা উপভোগ করেছেন সাধারন মানুষ।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি’র প্রথম নির্বাচনী সমাবেশ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাঙামাটি শহরের তবলছড়ি বাজারে অনুষ্ঠিত হয়।

বিএনপি নেতাকর্মী ও সমর্থকদের উপচে পড়া উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত এই সমাবেশে রাঙামাটি জেলা বিএনপি সভাপতি হাজি মোঃ শাহ আলম বলেছেন, আমাদের দলে কে কত বছর পরে এলো, সেটা নিয়ে আমাদের মাথা ব্যথা নেই, ঘুম নষ্ট হয়ে যাচ্ছে ওনাদের (আওয়ামীলীগের)। আমরা শুনতে পাই ওনারা কান পড়া দেন-‘কেনো মনি স্বপনকে দলে আনা হলো, তিনিতো বারো বছর দলে ছিলেন না। কি দরকার ছিল ওনাকে আনার, দলে কি আর কোন নেতা ছিলনা ?’

আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে শাহআলম বলেন,আমরা খেলতে নেমেছি, খেলোয়াড় আফ্রিকা নাকি উগান্ডা থেকে হায়ার করবো সেটা আমাদের ব্যাপার, খেলায় জেতাই মূল কথা। আমরা জিততে নেমেছি। আমার মনে হয় খেলোয়াড় বেশি শক্তিশালী হয়ে গেছে, তাই তাদের মাথা খারাপ হয়ে গেছে। আপনারা আপনাদের কথা ভাবুন আমাদের নিয়ে অযথা সময় ব্যয় করবেননা, পরে পস্তাবেন।’

শাহ আলম আরও বলেন আপনারা প্রচার করছেন মনি স্বপন জেএসএস’র প্রার্থী, আমিও বলছি তিনি জেএসএস-জামায়াত-বিএনপি-আওয়ামীলীগ তথা রাঙামাটির আপামর জনতার প্রার্থী। জয় আমাদেরই হবে।’

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রচারণা জমে উঠেছে পার্বত্য জনপদ রাঙামাটিতে, একে অপরকে কণ্ঠবাণে ঘায়েল করছেন নেতারা। এ যেন বাংলার নির্বাচনী প্রচারণার চিরচেনা রূপ, আর এই রূপকে উপভোগ করছেন পার্বত্যবাসিও।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button