নীড় পাতা / ব্রেকিং / সাজেক যাওয়ার পথে চবি ছাত্রীকে অপহরণ !

সাজেক যাওয়ার পথে চবি ছাত্রীকে অপহরণ !

বিশ্ববিদ্যালয়ের বন্ধুদের সাথে সাজেক বেড়াতে যাওয়ার পথে জীপ থামিয়ে সশস্ত্র পাহাড়ী তরুণরা অপহরণ করে নিয়ে গেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী রিমি চাকমাকে। সে বিশ^বিদ্যালয়টির পরিসংখ্যান বিভাগের সম্মান শ্রেণীর শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী বলে জানিয়েছে তার সহপাঠীরা।

বৃহস্পতিবার (০১ নভেম্বর) বেলা সাড়ে ৩টায় দীঘিনালা-বাঘাইহাট সড়কের শুকনাছড়া নামক এলাকা থেকে রিমি চাকমা (২৩) কে জীপগাড়ী থেকে অস্ত্রের মুখে অপহরণ করে নিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা।

রিমির সহপাঠী দীপ্ত রায় জানিয়েছেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পরিসংখ্যান ৪র্থ বর্ষের ১৩ জনের একটি গ্রুপ ২ দিনের জন্য সাজেক ভ্রমনে যাচ্ছিলাম। আমরা ৯ জন বান্ধবী ও ৪ জন বন্ধু বেড়াতে যাচ্ছিলাম। খাগড়াছড়ির দীঘিনালা পাড় হওয়ার পর মাঝপথে আমাদের গাড়ি থামিয়ে তিনজন পাহাড়ী তরুণ রিভলবার তাক করে গাড়ি থেকে আমাদের সহপাঠীকে নামিয়ে নিয়ে যায়।’

দীপ্ত জানিয়েছে, রিমি চাকমার বাড়ী দীঘিনালায় বলেই জেনেছি এবং সেখানে তার আত্বীয়স্বজন আছে বলত আমাদের,তার বাবা চট্টগ্রামের একটা গার্মেন্টস ফ্যাক্টরির ম্যানেজার বলে শুনেছি।’

প্রশাসন ও নিরাপত্তাবাহিনীর প্রতি সহপাঠীকে দ্রুত উদ্ধার করে ফিরিয়ে দেয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন দীপ্ত।

স্থানীয় প্রশাসন সূত্র জানিয়েছে,সম্ভবত বাঙালী সহপাঠিদের সাথে সাজেক যাচ্ছিলো বলেই রিমি চাকমাকে অপহরণ করেছে আঞ্চলিক সশস্ত্র সংগঠনের উগ্র কর্মীরা।

দীঘিনালার মাস্টারপাড়ার বাসিন্দা মেয়েটির মামী নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানিয়েছেন, মেয়েটির বাড়ি দীঘিনালার উদোলবাগান এলাকায় হলেও ছোটবেলা থেকেই বাবার চাকুরিসূত্রে চট্টগ্রাম শহরের বাসিন্দা মেয়েটি,সেখানে থেকেই পড়াশুনা করছে সে। অপহরণের খবর পাওয়ার পর থেকেই তার বাবা মাও এসেছেন, এবং তারা অপহরণস্থলে গিয়েও কোন কিছু পায়নি। স্থানীয়ভাবে মেয়েটিকে উদ্ধারের চেষ্টা করা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

আরো দেখুন

ক্যাম্পাসবার্তার সম্মাননা প্রদান বিধান চন্দ্র বড়ুয়াকে

রাঙামাটি সরকারি কলেজের বিদায়ি উপাধ্যক্ষ প্রফেসর বিধান চন্দ্র বড়ুয়া সরকারি চাকরি থেকে অবসর গ্রহণে বিদায়ী …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

4 × two =