ব্রেকিংরাঙামাটি

সহকর্মীদের আবেগী বিদায়ে ঘরে ফিরলেন ওরা ১১ জন

রাঙামাটি পৌরসভা থেকে চাকুরিজীবন শেষে

আর কখনই ন’টা পাঁচটার অফিস করা হবেনা তাদের। রুটিন মেনে আসা হবেনা বহুবছরের চেনা অফিসটাতে। দীর্ঘদিন ধরে যে প্রতিষ্ঠানের সুখ দু:খ আনন্দ বেদনার অংশ ছিলেন তারা,সেখানে পড়বেনা পদচিহ্ন। জরুরী কাজে হয়তো আসা হবে,কিন্তু নিজের দায়িত্ব পালনে আর কখনই যে ফেরা হবেনা ! চাকুরির সরকারি নিয়মেই প্রিয় প্রতিষ্ঠান থেকে প্রিয় সহকর্মীদের আবেগী উঞ্চতায় ভেজা বিদায় নিতে হলো। বৃহস্পতিবার তাই রাঙামাটি পৌরভবন যেনো তাই বিষাদের স্মরলিপি আঁকা চারদিকে !

এদিন রাঙামাটি পৌরসভার অবসরপ্রাপ্ত ১১ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিদায়ী সংবর্ধনা দিয়েছে পৌরসভা কর্তৃপক্ষ। এ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার দুপুরে পৌরসভা মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়েছে বিদায়ী সংবর্ধনা ও আলোচনা সভা। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উত্তরীয়, ক্রেস্ট প্রদান ও ফুলের শুভেচ্ছা জানানো হয়েছে।

পরে পৌর মিলনায়তনে রাঙামাটি পৌর কর্মচারী সংসদের সভাপতি একেএম বশির হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন- পৌরসভার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ইসলাম উদ্দীন। এতে আরও বক্তব্য দেন, রাঙামাটি পৌরসভার প্যানেল মেয়র কালায়ন চাকমা, পৌর কর্মচারী সংসদের সাধারণ সম্পাদক সনৎ বড়ুয়া, বিদায়ী কর আদায়কারী নুরুল আমিন, লাইসেন্স পরিদর্শক শংকর প্রসাদ প্রসাদ বড়ুয়া প্রমুখ। অনুষ্ঠানের সঞ্চলনা করেন পৌর কর্মচারী সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক বিপ্লব তালুকদার।

আলোচনা সভায় পৌরসভার মেয়র ও প্রধান নির্বাহী পৌরসভার কাজে আরও মনোযোগী হওযার জন্য কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। এসময় পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা তাদের গ্র্যচুয়েটি ফান্ড ও প্রভিডেন্ট ফান্ডের টাকা চাকরি থেকে অবসর শেষে এককালীন প্রদানের দাবি জানালে পৌরসভার মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী আশ্বাস প্রদান করেছেন।

রাঙামাটি পৌরসভার অবসরপ্রাপ্ত সংবর্ধিত কর্মকর্তা-কর্মচারীরা হলেন- পৌর সচিব উমেশ রায়, কর আদায়কারী নুরুল আমিন, লাইসেন্স পরিদর্শক শংকর প্রসাদ বড়ুয়া, হিসাররক্ষক মিহির কান্তি দেব, অফিস সহায়ক শিব চন্দ্র চাকমা ও অনিল চন্দ্র দাশ, গাড়ি চালক মো. ফারুক, মেকানিক রূপায়ন চাকমা, স্যানিটারি ইন্সপেক্টর সেবব্রত বড়ুয়া, জমাদার রতন কুমার সর্দ্দার ও সুধীর কুমার মালী।

MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button