আলোকিত পাহাড়ব্রেকিংরাঙামাটি

সম্মিলিত উদ্যোগে ঘাগড়ায় শহীদ মিনার স্থাপন

১৬ ডিসেম্বর। আবিরের মন খারাপ কারণ গত ডিসেম্বর অন্য বিদ্যালয়ে সে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছে কিন্তু এইবার যে বিদ্যালয়ে পড়ে সেখানে বা আশেপাশে শ্রদ্ধা নিবেদন এর জন্য নেই কোন শহীদ মিনার। একটি সত্য ঘটনা এবং ঘটনা ঘিরেই একটি উদ্যোগ। এনাম আহমেদ খান, পাহাড়িকা উচ্চ বিদ্যালয় এর সহকারী শিক্ষক, পাশাপাশি জড়িত রয়েছে বিভিন্ন সমাজসেবা মূলক কর্মকান্ডে। দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে পাহাড় ধস পরবর্তী ত্রাণ কার্যক্রমে, স্থাপন করেছেন মানবতার দেওয়াল অসহায় গরিবদের জন্য। স্বপ্ন দেখলেন নিজ জন্মস্থান ঘাগড়ায় হবে একটি স্বপ্নের শহীদ মিনার ;যেখানে শ্রদ্ধা নিবেদন করবে অসংখ্য শিক্ষার্থী জানবে ইতিহাস, জানবে আত্মত্যাগ সম্পর্কে। স্থান হিসেবে বাছাই করলেন আর টি এম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

‘ঘাগড়া মুসলিম যুব সমাজ’ এর সহ-সভাপতি ও ‘স্বপ্নবুনন-Dream Deviser’ কাউখালি উপজেলা অ্যাম্বাসেডর এনাম আহমেদ খান স্বপ্নপূরণে একত্রিত করলেন সকল কে ; উদ্যোগে সামিল করলেন বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র ছাত্রীদের ও ঘাগড়া মুসলিম যুব সমাজ কর্মীবৃন্দসহ বিভিন্ন জনকে। টানা ১৫ দিনের পরিশ্রমের পর সকলের সহযোগিতায় বাস্তবায়ন হলো শহীদ মিনার এর কাজ। উদ্বোধন হলো শহীদ মিনার। ফিতা কেটে শহীদ মিনার টি উদ্বোধন করেন জেলা পরিষদের সদস্য অংসুই প্রু চৌধুরি। এছাড়া তিনি একটি ফুলের চারা রোপণ করেন শহীদ মিনার এর পাশে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন কে এম মঞ্জুর হোসেন খান(সাধারণ সম্পাদক, কাউখালি উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি) রঞ্জন মনি চাকমা, (সভাপতি, বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ), দিলোয়ারা বেগম, প্রধান শিক্ষিকা, আরটিএম সঃ প্রাঃ বিঃ ,কে এম সাদ্দাম হোসেন (সভাপতি, ঘাগড়া মুসলিম যুব সমাজ) সহ এলাকার সর্বসাধারণ, স্কুলের অন্যান্য শিক্ষক, অভিভাবক, ছাত্র/ছাত্রীবৃন্দ। এ সময় উনারা এ কার্যক্রমের ভূয়সি প্রশংসা করেন।(বিজ্ঞপ্তি)

MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

এই সংবাদটি দেখুন
Close
Back to top button
Close