ব্রেকিংরাঙামাটিলিড

সন্ত্রাস-চাঁদা ও অস্ত্রবাজি বন্ধের দাবিতে রাঙামাটিতে মহাসমাবেশ

পাহাড়ে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার, চাঁদাবাজী বন্ধ ও ‘আদিবাসী’ হিসেবে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতির দাবীর আড়ালে পার্বত্য চট্টগ্রামকে পৃথক রাষ্ট্রে পরিণত করার ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে রাঙামাটিতে মহাসমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বেলা এগারোটায় সচেতন পার্বত্যবাসীর ব্যানারে শহরের পৌর চত্বর থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। বিক্ষোভ মিছিলটি শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা প্রসাশসের কার্যালয়ের সামনে এসে সমাবেশের জন্য নির্মিত অস্থায়ী মঞ্চে সমাবেশ শুরু করে।

মহাসমাবেশে গিরিবার্তার সম্পাদক মো. জামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন রাঙামাটি জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও মহিলা সংরক্ষিত আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, রাঙামাটি ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি, আলী আজগর,করাত কল সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক রবিন বিশ্বাস,রাঙামাটি অটোরিক্সা শ্রমিক ইউনিয়নের যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল হালিমসহ আরো অনেকেই ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, চুক্তির পর পাহাড়ে শান্তি আসেনি বরং উল্টো অশান্তি বেড়েছে। পাহাড় দিন দিন অবৈধ অস্ত্রের ব্যবহার বেড়েই চলছে, সাথে চাঁদাবাজীও। আমাদের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে। ইদানিং আঞ্চলিক সংগঠনগুলো নতুন করে পার্বত্য চট্টগ্রামকে পৃথক রাষ্ট্রে পরিণত করার ষড়যন্ত্রের জন্য ‘আদিবাসী’ হিসেবে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতির দাবী করে আসছে। আমরা সবাই বাংলাদেশী হিসেবে সবাই বসবাস করতে চাই এবং সাথে সাথে সরকারকেও এই বিষয়ে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানানো হয় সমাবেশ থেকে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাঙামাটি জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও মহিলা সংরক্ষিত আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু বলেন, ‘চাকমা সার্কেল চীফ দেবাশীষ রায় জরুরী তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের উপদেষ্টা ছিলেন, তখন তিনি নিজেই বলেছেন এদেশে কোন আদিবাসী নাই। সন্তু বাবু চুক্তি করার সময়ও বলেছেন তিনি পার্বত্যবাসীর পক্ষে চুক্তি করেছেন। তারা নিজেদের উপজাতি বলতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন। এখন সময়ের সাথে সাথে তাদের কথারো পরিবর্তন করেছে। জাতিসংঘ থেকে সহায়তা নেওয়ার জন্য নিজেদের আদিবাসী দাবী করার চেষ্টা করছেন। যেখানে বাংলাদেশ সরকার তার সংবিধানে সুস্পষ্টভাবে বলা আছে, বাংলাদেশে কোন আদিবাসী নাই। সুতরাং আমি মনে করি যারা নিজের আদিবাসী মনে করছে তারা সংবিধান বিরোধী তারা রাষ্টদ্রোহীতার সামিল অপরাধ করছে।’

MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

এই সংবাদটি দেখুন
Close
Back to top button