নীড় পাতা / ব্রেকিং / সন্ত্রাসীদের মাটির তিনহাত নিচে থেকেও বের করে আনার ক্ষমতা রাখি
parbatyachattagram

রাঙামাটিতে র‌্যাব প্রধান

সন্ত্রাসীদের মাটির তিনহাত নিচে থেকেও বের করে আনার ক্ষমতা রাখি

ফাইল ছবি

র‌্যাব মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ বলেছেন, আমরা এখানে এসেছি, সাম্প্রতিককালে পার্বত্য চট্টগ্রামের তিন জেলায় আকস্মিকভাবে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি যে অবনতির লক্ষ্য করছি এটার কারণে জানতে। আমি নিশ্চিত মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কানে এসব কথা পৌঁছাবে। বাংলাদেশের একটি অংশের মানুষ এত কষ্ট নিয়ে থাকবে এটি হতে পারে না। বাংলাদেশ ওই পর্যায়ে নেই। আমরা এই দেশ থেকে জঙ্গিবাদ নিচ্ছিন্ন করেছি, ধ্বংস করে দিয়েছি। যখনই নড়াচড়ার চেষ্টা করে তখনই নিশ্চিন্ন করে দিই। সুন্দরবনের জলদস্যু সমস্যা আজ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে সমাধান করা হয়েছে। আজ সুন্দরবনে শান্তির সুবাতাস বইছে। এক সময় সুন্দরবনের জেলেরা সন্ধ্যার আগে ভাত খেয়ে ফেলত। সেই সুন্দরবনে এখন জেলেরা নৌকায় টেলিভিশন চালায়। আপনারা দেখেছেন, আমরা মাদকের বিরুদ্ধে কী করছি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে নির্দেশে আমরা ক্যাসিনো বিরোধী অভিযান করেছি।

র‌্যাব প্রধান বলেন, প্রত্যেকেই শান্তি চায়, কিন্তু হৃদয়ের যে রক্তক্ষরণ সেটি অনেকেই ভয়ে বলেননি। কেউ অর্ধ বলেছেন, অস্পষ্ট বলেছেন। কিন্তু প্রত্যেকের ভিতরেই আমরা রক্তক্ষরণ অনুভব করি। এই অঞ্চলে ১৬ লাখ মানুষ বসবাস করে, আর ঢাকা শহরে বসবাস করে দুই কোটির ওপরে। প্রত্যহ আরও এক-দেড় কোটি মানুষ ঢাকা শহরে যাওয়া আসা করে। আগের থেকে এদেশের সেনাবাহিনী, বিজিবি, আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী অনেক বেশি শক্তিশালী। আপনারা আমাদের ওপর আস্থা রাখতে পারেন। গত দশ বছরে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশে বৈষম্যবিহীন উন্নয়ন হয়েছে। এক সময় আশেপাশে চিকিৎসা ব্যবস্থা ছিলো না, এখন হাতে হাতে চিকিৎসা। আপনারাই বলছেন, এখানে এক শ্রেণির লোক বিশ^বিদ্যালয় করতে বাধা দেয়, মেডিকেল কলেজ করতে বাধা দেয়, তারা কারা?

তিনি আরও বলেন, এই পাহাড়ের অসংখ্য ছেলেমেয়ে আমার সাথে কাজ করে, পুলিশের সাথে কাজ করে, সিভিল সার্ভিসে কাজ করে। উন্নয়নের সুফল আজকে পাহাড়ে কোনায় কোনায় পৌঁছে গেছে প্রধানমন্ত্রীর কারণে। আমরা যদি জঙ্গি বিতাড়িত করতে পারি, জলদস্যু মুক্ত করতে পারি, মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে পারি, তাহলে পার্বত্য চট্টগ্রামকে এ সমস্ত লোককে মাটির তিনহাত নিচে থেকেও বের করে আনার ক্ষমতা রাখি। আমরা বলতে চাই, আমরা কেউ কোনো ভয় পাবেন না। পৃথিবীতে বর্তমানে নাইন ট্রিলিয়ন ডলারের ট্যুরিজম ব্যবসা আছে। কেউ কেউ বলছেন, এখানে যদি বেকারত্ব দূর হয় তাহলে কেউ এসব দলে ঢুকবে না। আমি মনে করি এখানে, নিরাপত্তার জন্য আমি আপনারা সবচে বড় ভূমিকা পালন করবেন, আমরা হচ্ছি আপনাদের সহযোগী। যে অঞ্চল অপার সম্ভাবনার অঞ্চল, সেখানে আমরা সকল ধরণের কাজে সেবা দিতে প্রস্তুত। পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয় থেকে গত দশ বছরে সরকার এই অঞ্চলে হাজার কোটি টাকা খরচ করেছে। যদি এর সাথে আমরা অন্য মন্ত্রনালয়ের যোগ করি তাহলে সেটা ৩০ হাজার কোটি হাজার নিচে নয়।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

রাঙামাটি বিএনপির বিক্ষোভ

কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে পার্বত্য জেলা রাঙামাটিতে পেঁয়াজ ও নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতির প্রতিবাদে বিক্ষোভ …

Leave a Reply