ব্রেকিংরাঙামাটিলিড

সকালে প্রতিবাদ সভা, বিকেলে সমঝোতা

সিএনজি চালকদের হাতে রাঙামাটি পৌরসভার সেবকদের মারধর ও কর্মকর্তা/কর্মচারীদের লাঞ্চিত করার প্রতিবাদে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে রাঙামাটি পৌর কর্মচারী সংসদ ও পৌর সেবক কল্যাণ সমিতি। শুক্রবার সকালে রাঙামাটি পৌরসভার সামনে এ প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিবাদ সভায় অনির্দিষ্টকালের জন্য বর্জ্য অপসারণ বন্ধের ঘোষণা দিলেও বিকেলে উভয় পক্ষের মধ্যে আনুষ্ঠানিক বৈঠকের পর বিষয়টি সমাধান হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন দুই সমিতির নেতৃবৃন্দ।

সন্ধ্যায় রাঙামাটি পৌর কর্মচারী সংসদ প্রেরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ স্বীকৃতি লাভ করায় শনিবার সারাদেশে উৎসবমুখর পরিবেশে আনন্দ শোভাযাত্রা কর্মসূচির প্রতি সম্মান রেখে ও পৌরবাসীর দুর্ভোগের বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে মেয়র মহোদয়ের উদ্যোগে শুক্রবার বিকেলে একটি সমঝোতা সভা মেয়র কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। সমঝোতা সভায় সিএনজি অটোরিক্সা চালক সমিতির নেতৃবৃন্দ অনাকাক্সিক্ষত ঘটনার জন্য অনুতপ্ত হয়ে ভুল স্বীকার করে নেওয়ার প্রেক্ষিতে রাঙামাটি পৌর কর্মচারী সংসদ ও রাঙামাটি পৌর সেবক কল্যাণ সমিতির ডাকা অনির্দিষ্টকালের জন্য বর্জ্য অপসারণ বন্ধের কর্মসূচি প্রত্যাহার করা হল।’

রাঙামাটি পৌর কর্মচারী সংসদের সভাপতি এসএম বশির আহমেদ জানান, বিকেলে মেয়র সাহেবের রুমে অটোরিকশা সমিতির নেতৃবৃন্দ এসে বিষয়টির জন্য দুঃখ প্রকাশ জানালে এবং ভবিষ্যতে এ ধরনের কর্মকান্ড থেকে নিজেদের বিরত রাখার আশ্বাসে বিষয়টি মীমাংসা করা হয়েছে। এছাড়া মানুষের দুর্ভোগের বিষয়টি মাথায় রেখে মীমাংসার জন্য রাজি হই। পরবর্তীতে মামলা প্রত্যাহার করা হবে বলে তিনি জানান।

রাঙামাটি অটোরিক্সা শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি অলি আহম্মেদ বলেন, একটা বিষয় নিয়ে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। এখন বিষয়টি আমরা আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করেছি।

এদিকে দোষীদের শাস্তির দাবিতে সকালে রাঙামাটি পৌর কর্মচারী সংসদের সভাপতি এসএম বশির আহমেদ’র সভাপতিত্বে এবং পৌর সেবক কল্যাণ সমিতি সভাপতি চিত্তরঞ্জন চাকমার সঞ্চালনায় প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন রাঙামাটি পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী বিরল বড়–য়া, রাঙামাটি পৌর কর্মচারী সংসদের সাধারণ সম্পাদক সনৎ বড়–য়া, সাংগঠনিক সম্পাদক বিপ্লব তালুকদার, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ আল মাহমুদ সোহেল, পৌর সেবক কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক অমল কুমার দেসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা দোষীদের দ্রুত গ্রেফতার করা না হলে রাঙামাটি পৌর এলাকায় বর্জ্য অপসারণ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রাখার ঘোষণা দেন। বক্তারা বলেন, সিএনজি চালকরা নিজেদেরকে খুবই ক্ষমতাশীল মনে করে, তাদের কাজে ও ব্যবহারে অতিষ্ঠ রাঙামাটিবাসী। ইতিপূর্বেও তারা বেশ কয়েকবার এমন খারাপ আচারণ করেছে। তারা আরো বলেন, কথায় কথায় গাড়ি বন্ধ করে দিয়ে তারা রাঙামাটিবাসীকে মুহূর্তের মধ্যে ভোগান্তিতে ফেলে দেয়। এমতবস্থায় আমাদেরকে বিকল্প পরিবহন ব্যবস্থা খুঁেজ নিতে হবে। প্রয়োজনে টাউন সার্ভিস চালু করার দাবি জানান বক্তারা।

সকাল থেকে পরিচ্ছন্ন কর্মীরা বর্জ্য অপসারণ না করায় রাঙামাটি শহরের বিভিন্ন স্থানে বর্জ্যর স্তুপ জমে গেছে।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

১টি কমেন্ট

  1. সিএনজি চালকদের শাস্তি না হলে রাংগামাটি মানুষ শান্তি পাবে না, ড্রাইভারদের উপর রাংগামাটিবাসি ক্ষিপ্ত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eighteen − fourteen =

Back to top button