নীড় পাতা / পাহাড়ের সংবাদ / খাগড়াছড়ি / সংসদ সদস্য বাসন্তী চাকমাকে পাহাড় ছাড়ার আল্টিমেটাম
parbatyachattagram

অন্যথায় রবিবার খাগড়াছড়িতে সকাল-সন্ধ্যা অবরোধের হুমকি

সংসদ সদস্য বাসন্তী চাকমাকে পাহাড় ছাড়ার আল্টিমেটাম

সংরক্ষিত আসনে পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে সংসদ সদস্য হিসেবে মনোনীত বাসন্তি চাকমার সংসদে দেয়া বক্তব্যের প্রতিবাদে ঈদের পরদিন বিক্সোভ মিছিল,সমাবেশ ও তার খাগড়াছড়িস্থ বাসভবন ঘেরাও কর্মসূচী পালন করে আল্টিমেটাম দিয়েছে পার্বত্য অধিকার ফোরাম নামে বাঙালীভিত্তিক একটি সংগঠন।
এই বছরেরই ২৬ শে ফ্রেরুয়ারী জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনে নিজের দেয়া বক্তব্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম সম্পৃক্ত কয়েকটি বিষয়ে ‘স্পর্শকাতর’ বক্তব্য দেন মহিলা আওয়ামীলীগের এই নেত্রী। এই বিষয়ে আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে কোন প্রতিক্রিয়া দেখানো না হলেও স্থানীয় বাঙালী সংগঠনগুলো তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে আসছে। এর আগেও নানান কর্মসূচী পালন করেছে তারা।

শুক্রবার বাসন্তী চাকমাকে পার্বত্য চট্টগ্রাম ত্যাগ,প্রকাশ্যে সংসদে দাঁড়িয়ে ক্ষামা প্রার্থনা,মহিলা আওয়ামীলীগ থেকে বহিষ্কার এবং তারস্থলে অন্য কাউকে সংসদ সদস্য হিসেবে মনোনীত করার চারদফা দাবিতে কর্মসূচী পালন করে তারা। বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করার পাশাপাশি তারা এই সংসদ সদস্যের বাসভবনের সামনে দীর্ঘসময় অবস্থান করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে।
এর আগে গত ২ মার্চ’১৯ ইং হতে তার বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে পার্বত্য তিন জেলায় সংবাদ সম্মেলন, মানববন্ধন,প্রতিবাদ সমাবেশ, বিক্ষোভ মিছিল কুশপুত্তলিকা দাহ,প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মাারকলিপি প্রদান করে বাঙালি সংগঠনগুলো। সর্বশেষ ৭ মার্চ তারিখে তাকে পাহাড়ে অবাঞ্চিত ঘোষণা করে সংগঠনটি।

সভাপতি এসএম মাঈনউদ্দিনের নেতৃত্বে কর্মসূচীতে কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক এস এম মাসুম, মাটিরাঙ্গা উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান ও জেলা শাখার সদস্য সচিব আনিসুজ্জামান ডালিম, কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক সাহাবুদ্দীন, কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক সাদ্দাম হোসেন,জেলা আহবায়ক এস এম হেলাল, খাগড়াছড়ি জেলা শাখার যুুগ্ম আহবায়ক মোক্তাদির হোসেন, কেন্দ্রীয় অর্থ সম্পাদক রবিউল হোসেন, বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম ছাত্র পরিষদ খাগড়াছড়ি জেলা যুগ্ন সম্পাদক ইব্রাহিম খলিল, দীঘিনালা উপজেলা শাখার সভাপতি আলামিন হোসেন বক্তব্য রাখেন। উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য অধিকার ফোরামের জেলা আহবায়ক কমিটির সদস্য মনসুর আলম হীরা, দিঘীনালা উপজেলা শাখার সিনিয়র সহ সভাপতি গোলাপ হোসেন, বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম ছাত্র পরিষদ খাগড়াছড়ি জেলা শাখার প্রচার সম্পাদক সোহেল রানা, দীঘিনালা উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন আহম্মেদ, মাটিরাঙা উপজেলা শাখার সদস্য সৌরভ হোসেন, সদর ইউনিয়ন কমিটির সভাপতি সালাম, মনির,মুছা ও বাবুলসহ অন্যান্য শাখার গুরুপ্তপূর্ন নেতারা। কর্মসূচীতে সভাপতিত্ব করেন বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম ছাত্র পরিষদ খাগড়াছড়ি জেলা সভাপতি জাহিদুল ইসলাম।
সমাবেশে বক্তারা বলেন, ‘যে চুক্তির কারনে পাহাড়ে পাহাড়ে ২ দশকের সশস্ত্র সংঘাতের অবসান হয়ে পাহাড়ে শান্তির সু বাতাস বইছে,পাহাড়ে সার্বিক উন্নয়ন হচ্ছে, সাধারণ উপজাতীয়দের জীবনে উন্নয়ন হচ্ছে। সে চুক্তির পক্ষে কোন বক্তব্য না দিয়ে চুক্তিবিরোধী ইউপিডিএফ ও জেএসএস সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজদের সুরে কথা বলে তাদের মনোবল সঞ্চার করেছেন। ’

কেন্দ্রীয় সভাপতি মাঈন উদ্দীন তার বক্তব্যে বলেন- বাসন্তী চাকমার উগ্র সাম্প্রদায়িক বক্তব্য প্রদান, ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করে কথা বলা, সংবিধান ও সংসদ সদস্যের শপথ পরিপন্থিভাবে বাংলাদেশের নাগরিকদের ‘বহিরাগত সেটেলার’ আখ্যা দেওয়া,পার্বত্য চট্টগ্রামের অখন্ডতা রক্ষায় নিয়োজিত দেশপ্রেমিক সেনাবাহিনীর নামে মিথ্যা অপবাদ দেওয়া, ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদ হওয়া পার্বত্য চট্টগ্রামের বাঙালি মুক্তিযোদ্ধাদের ত্যাগের প্রতি অসম্মান জানানো ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে প্রশ্নবিদ্ধ করা সহ উপজাতীয় বিচ্ছিন্নতাবাদী সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের সুরে কথা বলে তিন পার্বত্য চট্টগ্রামের মানুষের মাঝে উগ্র-সাম্প্রদায়িক ও জাতিগত বিভেদ উস্কে দিয়েছেন।’

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বান্দরবানে অপহৃত ৬ পাহাড়ি মুক্ত

অপহরণের ২৪ ঘন্টা পর মুক্তি পেয়েছে বান্দরবানের রুমা থেকে অপহৃত ৬ পাহাড়ী। সোমবার বিকাল ৪টার …

Leave a Reply