ব্রেকিংরাঙামাটিলিড

শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ আব্দুল রশিদকে স্মরণ

৩১ তম শাহাদাত বার্ষিকীতে

শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলে শান্তি প্রক্রিয়ায় নিহত শহীদ, জেলা যুব ইউনিয়নের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ আব্দুল রশিদকে স্মরণ করেছে যুব ইউনিয়ন। বৃহস্পতিবার সকাল আটটায় রাঙামাটি জেলা শহরের রিজার্ভবাজার রাঙামাটি পার্কস্থ শহীদের স্মৃতিসৌধে ‘নিরাপদ শারীরিক দূরত্ব’ বজায় রেখে শহীদের ৩০তম মৃত্যুবার্ষিকীতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে দিবসটি পালন করে সংগঠনটি। শহীদের স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে এক মিনিট নীরবতা পালন করেন উপস্থিত নেতৃবৃন্দ।

এরপর সংক্ষিপ্ত স্মরণসভায় জেলা যুব ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মিল্টন বিশ্বাস ও জেলা যুব ইউনিয়নের সভাপতি জিসান বখতেয়ারের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) রাঙামাটি জেলা শাখার সভাপতি সমীর কান্তি দে, সাধারণ সম্পাদক অনুপম বড়ুয়া শংকর, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক নেতা মো. রুহুল আমিন, জেলা খেলাঘর আসরের সাধারণ সম্পাদক সৈকত রঞ্জন চৌধুরী এবং জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক প্রান্ত দেবনাথ।

এসময় বক্তারা বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল রশিদ ছিলেন গণমানুষের নেতা। তাঁর নীতি আদর্শ আমাদের কাছে অনুসরণীয়। বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের এমন দিনেও আমরা আজ এই মহান নেতাকে স্মরণ করতে একত্রিত হয়েছি। তাঁর প্রগতিশীল জীবনাদর্শ ও সা¤প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে তাঁর লড়াই-সংগ্রাম আমাদের জন্য অনুপ্রেরণার।

দেশের বর্তমান প্রেক্ষাপটের কথা তুলে ধরে নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, ‘করোনার এই ক্রান্তিলগ্নে দেশের চাল চোর, গম চোর ও দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে কথা বলে আসছে কমিউনিস্টরাই। এখন দেশের ক্ষমতাসীন নেতা, এমপি-মন্ত্রীরা সত্যিকারের জনপ্রতিনিধি নয়, তারা জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয় বলেই জনগণের দাবি তারা শুনতে পান না। দেশে এখন চলছে রাজনৈতিক দুর্বৃত্তায়ন। তাই দেশ রক্ষার জন্য বাম বিকল্প শক্তি গড়ে তুলতে হবে। এবং দেশের স্বাধীনতার বিরোধী ও সা¤প্রদায়িক অপশক্তি যেন মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে না পারে সেজন্য সকলকেই সজাগ থাকতে হবে।’

উল্লেখ্য যে, শহীদ আব্দুল রশিদ ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলে শান্তি প্রক্রিয়ার অন্যতম নেতা, বিশিষ্ট সাংবাদিক, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, ক্রীড়াবিদ ও সমাজকর্মী। তিনি বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন রাঙামাটি জেলা শাখার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক নেতা ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য ছিলেন। এছাড়া রাঙামাটি প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন ও শ্রমিক সংগঠনের দায়িত্ব পালন করেছেন। ১৯৮৯ সালের এইদিনে বামপন্থী এই নেতা নিজ পত্রিকা কার্যালয়ে আততায়ীর গুলিতে নিহত হন।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

17 + 20 =

Back to top button