রাঙামাটি

শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল রশীদকে স্মরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥
শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ সাংবাদিক কমরেড আবদুল রশীদকে স্মরণ করেছে সহযোদ্ধারা। শুক্রবার সকালে রাঙামাটি জেলা শহরের রিজার্ভ বাজার রাঙামাটি পার্ক এলাকায় আবদুল রশীদের স্মৃতিসৌধে তাঁর ৩১তম মৃত্যুবার্ষিকীতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন রাঙামাটি জেলা শাখা। এসময় জেলা কমিউনিস্ট পার্টি, যুব ইউনিয়ন ও ছাত্র ইউনিয়নের নেতা-কর্মীসহ শহীদ পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

পরে শহীদ আবদুল রশীদের স্মরণে স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে জেলা যুব ইউনিয়নের সভাপতি এম জিসান বখতেয়ারের সভাপতিত্বে ও জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক প্রান্ত রনি’র সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) রাঙামাটি জেলার সভাপতি সমীর কান্তি দে, সাধারণ সম্পাদক অনুপম বড়ুয়া শংকর, সম্পাদকম-লীর সদস্য আশীষ দাশগুপ্ত, জেলা যুব ইউনিয়নের সহ-সভাপতি কমল বিকাশ দে, শহীদ আবদুল রশীদের ছেলে মোস্তফা রশিদ রনি, রাঙামাটি সরকারি কলেজ ছাত্র ইউনিয়নের আহবায়ক অয়ন চক্রবর্তী।

এসময় বক্তারা বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল রশীদ পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি প্রক্রিয়ার অন্যতম একজন নেতা ছিলেন। বাম মতাদর্শিক এই ব্যক্তি বিভিন্ন সামাজিক ও মানবিক কাজের সঙ্গেও জড়িত ছিলেন। আমাদের কমরেড রশীদের আদর্শকে বুকে ধারণ করতে হবে। রশীদ হত্যার ৩১ বছর পার হলে গেলেও এখনও এই হত্যাকা-ের বিচার হয়নি।

উল্লেখ্য, ১৯৮৯ সালের এই দিনে আততায়ীর গুলিতে নিজের পত্রিকা পার্বত্য বার্তা অফিসে কাজ করার সময় নিহত হন প্রথিতযশা এই সাংবাদিক ও সমাজকর্মী। আবদুল রশীদকে পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের শান্তি প্রক্রিয়ার অন্যতম নেতা ছিলেন। ছাত্র জীবনে তিনি বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। পরবর্তী বাংলাদেশ যুব ইউনিয়নসহ অন্যান্য সামাজিক ও ক্রীড়া সংগঠনের সঙ্গেও যুক্ত ছিলেন শহীদ আবদুল রশীদ। ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য। বাম রাজনীতির সাহসী নেতা, একাত্তরের বীর মুক্তিযোদ্ধা, সাবেক চৌকস ছাত্রনেতা, সুবক্তা আর অসাধারণ গুণাবলীর অধিকারী আবদুল রশীদ খুব সহজেই সবার হৃদয় জয় করতে পারতেন।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

এই সংবাদটি দেখুন
Close
Back to top button