নীড় পাতা / পাহাড়ের সংবাদ / খাগড়াছড়ি / শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ‘সততা স্টোর’ চালু করতে অর্থ সহায়তা
parbatyachattagram

দুর্নীতি দমন কমিশনের নির্দেশে

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ‘সততা স্টোর’ চালু করতে অর্থ সহায়তা

দুর্নীতি দমন কমিশনের নির্দেশে খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা উপজেলার দুইটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ‘সততা স্টোর’ চালু করার জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রধান শিক্ষকের হাতে নগদ অর্থ তুলে দেওয়া হয়েছে।

রোববার দুপুরের দিকে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ, মাটিরাঙ্গার আলুটিলা বটতলী উচ্চ বিদ্যালয় ও মাটিরাঙ্গা মহিলা স্কুল এন্ড কলেজ এর দুই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রধান শিক্ষকের হাতে নগদ অর্থ তুলে দেন। এই সময় উপস্থিত ছিলেন মাটিরাঙ্গা উপজেলা প্রকৌশলী কর্মকর্তা মো: আনোয়ারুল হক, মাটিরাঙ্গা সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিরনজয় ত্রিপুরা, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা নিটোল মনি চাকমা, দুর্নীতি দমন কমিশন মাটিরাঙ্গা উপজেলা শাখার সভাপতি মো: আব্দুর রহিম প্রমূখ।

মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ বলেন, নীতিমালায় বলা হয়েছে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের স্কুল ক্যাম্পাসের উপযুক্ত কোন কক্ষ হতে হবে। এই সততা স্টোরের অর্থের উৎস শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রদত্ত নির্দেশনা অনুসারে সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্ষদ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সঙ্গে পরামর্শক্রমে স্টোরের প্রাথমিক পুঁজি সংগ্রহ ও বিনিয়োগ করবেন। সততা স্টোরে পণ্যের নাম ও মূল্য তালিকা সাঁটানো থাকতে হবে। প্রতি শিক্ষার্থী একটি বাক্সে ওই পণ্যের মূল্য রাখবে। পণ্যের বিবরণ তালিকায় খাতা, কলম, পেন্সিল, রবার, স্কেল, জ্যামিতি বক্স, রং পেন্সিল, চিপস, বিস্কুট রয়েছে। এছাড়া সততা সংঘের পরিচালনা কমিটির নিকট যে সকল পণ্য ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য আবশ্যক বলে প্রতীয়মান হবে তা রাখতে পারবে। ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য সততা স্টোরের কিছু নীতিমালা মেনে চলতে বলা হয়েছে। এর মধ্যে স্টোরের প্রবেশের সময় নাম, শ্রেণী ও রোল নং লিপিবদ্ধ করতে হবে।

সততা স্টোর গঠন সংক্রান্ত নীতিমালায় বলা হয়েছে, দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির গঠনতন্ত্র ও কার্যনির্দেশিকা অনুযায়ী তরুণ প্রজন্মের মাঝে সততা ও নিষ্ঠাবোধ সৃষ্টি করা এবং দুর্নীতির বিরুদ্ধে গণসচেতনতা গড়ে তোলার লক্ষ্যে দেশব্যাপী বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে ইতোমধ্যে ‘সততা সংঘ’ গঠিত হয়েছে। ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে নৈতিকতা ও সততা দৃঢ়ভাবে প্রোথিত করার লক্ষ্যে নিয়মিত সততা শিক্ষা ও এর চর্চা আবশ্যক। এক্ষেত্রে দেশের কোনো কোনো জেলা-উপজেলার স্কুলে ছাত্র-ছাত্রীদের নৈতিক শিক্ষা চর্চার লক্ষ্যে বিক্রেতাবিহীন সততা স্টোর চালুর পরিকল্পনা প্রহণ করা হয়েছে। যা উক্ত স্কুলগুলোর শিক্ষার্থীদের মধ্যে নৈতিকতা ও আদর্শ গঠন দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করবে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

পথের কাঁটা সমূলে তুলে ফেলা হবে

‘আমরা মূলত আমরা শুনতে এসেছি, আপনারা কেমন পার্বত্য চট্টগ্রাম চান, কিভাবে দেখতে চান এ অঞ্চলকে, …

Leave a Reply