ব্রেকিংরাঙামাটি

লংগদুর আব্দুর রশীদ পাচ্ছেন শ্রেষ্ঠ মৎস্য চাষীর জাতীয় স্বর্ণপদক

লংগদু উপজেলার মাইনীমুখ এলাকার মোঃ আব্দুর রশীদ একজন সফল ও শ্রেষ্ঠ রুই জাতীয় মৎস্য চাষী ও উৎপাদক হিসেবে ২০১৭ সালের মৎস্য সপ্তাহে স্বর্ণপদকে মনোনীত হয়েছেন। তিনি বুধবার প্রধান মন্ত্রীর নিকট থেকে স্বর্নপদক গ্রহন করবেন বলে জানিয়েছেন উপজেলা মৎস কর্মকর্তা মো: রাকিব হাসান।

রাঙামাটির লংগদুতে মৎস্য সপ্তাহ উদযাপন উপলক্ষে উপজেলা মৎস্য বিভাগের উদ্যোগে এক সংবাদ সন্মেলনের এ তথ্য জানান তিনি।
মঙ্গলবার উপজেলা মৎস্যা কর্মকর্তার কার্যালয়ে এসংবাদ সন্মেলনের আয়োজন করা হয়। এতে সভাপতিত্ব ও মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ রাকিব হাসান।

এসময় সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা নব আলো চাকমা, ক্ষেত্র সহযোগী মোঃ নাছির উদ্দিন, লংগদু প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক মুছা, দৈনিক পার্বত্য চট্টগ্রামের লংগদু প্রতিনিধি আরমান খান সহ অন্যান্য সাংবাদিকগন সহ লংগদু মৎস্যজীবি সমিতির সভাপতি ইমান আলী উপস্থিত ছিলেন।

মূল বক্তব্যে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ রাকিব হাসান বলেন, জনগণেরর শতকরা ৬০ভাগ প্রাণিজ আমিষ চাহিদা পূরণ সহ গ্রামীণ জনপদে কর্মসংস্থান সৃষ্ঠি এবং বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনে এদেশের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বাংলাদেশের অভ্যন্তরীন জলাশয়ে মাছ আহরণে বিশ্বে ৪র্থ স্থান অর্জন করেছে। ২০১৫-১৬ অর্থ বছরে দেশে মৎস্য উদপাদন বৃদ্ধি পেয়ে ৩৮.৮৪ লক্ষ মে.টনে দাড়িয়েছে। জিডিপির ৩.৬৫ শতাংশ আসে এই মৎস্য খাত হতেই। কৃষিজ জিডিপির একচতুর্থাংশ আসে মৎস্য খাত থেকে। বিগত ১০ বছরে এখাতে জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জিত হয়েছে ৬.৩১ শতাংশ এবং বিগত ৭বছরে এখতে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে অতিরিক্ত কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হয়েছে ৬ লক্ষাধিক গ্রামীণ জনগনের, উপার্জন বেড়েছে ৩০ শতাংশ।

এছাড়া মায়ানমার ও ভারতের সমুদ্র সীমা বিরোধ নিষ্পত্তির মাধ্যমে বর্তমান সরকার গভীর সমুদ্রে ১লক্ষ ৮০ হাজার ৮১৩ বর্গ কিলোমিটার এলাকার মালিকানা এদেশের জনগনের হাতে তুলে দিয়েছে।

 

 

 

এই বিভাগের আরো সংবাদ

ি কমেন্ট

  1. In CHT Rangamati, during the last flood,all fishes were washed away from Kaptai Lake because all 16 sluice gates of Kaptai Dam were widely open for a long time & fishes like new water. So Govt, NGOs, CHT Authority, Rangamati DC, Fishing Ministry, Chakma Raja & local fisheries all together should introduce carps & all kinds of indigenous species of fishes in Kaptai Lake for the next fishing season & Bangladesh Economy.

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: