পার্বত্য পুরাণ

রুদ্ধদ্বার মুক্তপ্রাণ

আজ ভোরে এসে আমার বারান্দায়
শিষ বাজালো কে মনের খেয়ালে
আবার আড্ডা জমে যাবে সন্ধ্যায়?
দিনপঞ্জিটা কে উল্টালো দেয়ালে

সেরকম কোনো নাছোড়বান্দা পাখি
ভাঙাবে এসে পৃথিবীর অভিমান
চেনা নাম ধরে করবে সে ডাকাডাকি
মীড় ও গমকে ধরবে বুঝি সে তান

এসেম্বলিতে আবার দেশের গানে
সুর মেলাবে কচিকাঁচার দল
ছোট্ট বুকে পুষে রাখা অভিমানে
নতুন ভোরে ফুটবে লাল কমল

আবার আমার স্তব্ধ শহরতলী
ব্যস্ত পায়ে ছোটাছুটি সারাদিন
ক্রিকেট নিয়ে ময়দানে দলাদলি
সন্ধ্যে নাগাদ হাকডাক সীমাহীন

ছুটবে সবাই অফিসমুখী বাসে
করোনা শেষে উঠে যাবে পাহারা
সন্ধ্যে নাগাদ ছুটির অবকাশে
গলির মুখে উপচে যাবে পাড়া

আবার কোনো নববর্ষের ভোরে
ফুলের দোকানে উপচে পড়া ভিড়
কবিতা শেষে আড্ডার হুল্লোড়ে
প্রেমিকা খুঁজবে শান্ত নদীর তীর

বিপরীতে চলা জনতুষ্টিবাদের
ধিক্কার জানাবে বঞ্চিত বিশ্বময়
দাবীটা মৌলিক শিক্ষা ও স্বাস্থ্যের
বিরুদ্ধবাদীও সায় দেবে নিশ্চয়ই

তবুও বাজেট নিয়ে তর্ক হবে খুব
শিক্ষা স্বাস্থ্যে বিকশিত দশদিক
পোষা বুদ্ধিজীবীরা তখনও নিশ্চুপ
পৃথিবীটা দেখো সামলে নেবে ঠিক

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

এই সংবাদটি দেখুন
Close
Back to top button