লিড

রাঙামাটি শহর সমাজসেবার ‘দায়িত্বহীন’ সেবা !

সৈকত বাবু
একটি অর্ধ নির্মিত ঘরের সামনে অসংখ্য মানুষ দাঁড়িয়ে ও বসে আছে গাদাগাদি করে। দূর থেকে দেখলে যে কেউ ভাবতে পারে ত্রাণ বিতরণ চলছে, ত্রাণের জন্য অপেক্ষে করছে সাধারণ মানুষ। আসলে বিষয়টি মোটেই তেমন নয়। যারা এমন করোনার সময়ে এভাবে গাদাগাদি করে অপেক্ষা করছেন তারা সবাই বয়স্ক, বিধবা নয়তো প্রতিবন্ধি। ভিতরে ঢুকলে জানা যাবে এটি তবলছড়ি অবস্থিত রাঙামাটি শহর সমাজসেবা কর্মকর্তার অফিস। তারা সবাই অপেক্ষা করছেন সরকারি বিভিন্ন ভাতার বই সংগ্রহের জন্য।

এই বই সংগ্রহ করতে তাদের পোহাতে হচ্ছে সীমাহীন দুর্ভোগ। অনেকে দীর্ঘক্ষণ দাঁড়িয়ে হাঁপিয়ে উঠেছেন। একদিকে করোনা, রমজান ঠিক তেমনই প্রচন্ড রোদ। ভাতা বইগ্রহীতারা যেহেতু সবাই স্বাভাবিকভাবেই দুর্বল কিন্তু তাঁদের জন্য ব্যবস্থা করা হয়নি কোন বসার বা ছায়া সম্বলিত কোন স্থানের। অনেক সময় শহর সমাজসেবা কর্মীদের দুর্ব্যবহারও সহ্য করতে হচ্ছে তাদের। করোনার সময়ে অফিস কর্তারা তোয়াক্কা করছেন না সরকারি সামাজিক দুরত্বের বিধি নিষেধ। অথচ করোনায় সবচেয়ে ঝুঁকিপুর্ণ এই বয়স্ক, বিধবাও প্রতিবন্ধিরা। শহর সমাজ সেবার এমন দুর্ভোগের সেবায় ক্ষুব্ধ ভাতা গ্রহীতারা। অনেকে ক্ষুব্ধ কন্ঠে বলেন এরা সেবার নামে কষ্ট দিচ্ছে সকলকে।

সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক ভাতা গ্রহণকারীদের বই জমা নেয় শহর সমাজ সেবা কার্যালয়। বর্তমানে সকল ভাতাভোগীদের মাঝে বিতরণ করা হচ্ছে সেই ভাতার বইগুলো।

প্রতিবন্ধী অয়ন চক্রবর্র্তী বলেন, অনেক সময় ধরে অপেক্ষা করতে করতে হাঁপিয়ে উঠেছি। বসার কোন ব্যবস্থা নাই। নাই কোন সামাজিক দুরত্বের ব্যবস্থা। সমাজ সেবায় যেন হয়রানি থামেই না।

বয়স্ক আবু তালেব বলেন, আমাদের কষ্টের কথা কাকে বলবো। সেই সকালে আসছি রোদে দাঁড়িয়ে আছি কেউ ভালোভাবে কথাও বলে না। আমাদের দেখার কেউ নাই।

প্রতিবন্ধি স্কুলের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আবছার বলেন, প্রতিবন্ধি ও বয়স্কদের জন্য অবশ্যই ছায়ায় বসার ব্যবস্থা করা উচিত। এ করোনার সময়ে তারাই মুলত বেশি ঝুঁকিতে আছে।

রাঙামাটি শহর সমাজ সেবা কর্মকর্তা মাজাহারুল ইসলামকে একাধিকবার ফোন করেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয় নাই।

এ বিষয়ে রাঙামাটি জেলা সমাজ সেবা কার্যালয়ের উপ পরিচালক ওমর ফারুক বলেন, আপনার কথা নোট করলাম। আমি বিষয়টি দেখছি।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twenty − eleven =

Back to top button