ব্রেকিংরাঙামাটিলিড

রাঙামাটি শহরে বর্জ্য অপসারণ বন্ধ

সিএনজি চালকদের হাতে রাঙামাটি পৌরসভার সেবকদের মারধর ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের লাঞ্চিত করার প্রতিবাদে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে রাঙামাটি পৌর কর্মচারী সংসদ ও পৌর সেবক কল্যাণ সমিতি। শুক্রবার সকালে রাঙামাটি পৌরসভার সামনে এ প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে রাঙামাটি পৌর কর্মচারী সংসদের সভাপতি এসএম বশির আহমেদ’র সভাপতিত্বে এবং পৌর সেবক কল্যাণ সমিতি সভাপতি চিত্তরঞ্জন চাকমার সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য রাখেন রাঙামাটি পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী বিরল বড়–য়া, রাঙামাটি পৌর কর্মচারী সংসদের সাধারণ সম্পাদক সনৎ বড়–য়া, সাংগঠনিক সম্পাদক বিপ্লব তালুকদার, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ আল মাহমুদ সোহেল, পৌর সেবক কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক অমল কুমার দেসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা দোষীদের দ্রুত গ্রেফতার করা না হলে রাঙামাটি পৌর এলাকায় বর্জ্য অপসারণ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রাখার ঘোষণা দেন।

এদিকে পরিচ্ছন্ন কর্মীরা বর্জ্য অপসারণ না করায় রাঙামাটি শহরের বিভিন্ন স্থানে বর্জ্যর স্তুপ জমে গেছে। দুর্ভোগে পড়েছেন শহরবাসি।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

ি কমেন্ট

  1. সিএনজি ড্রাইবারা একজন পরিচ্ছন্নতা কর্মীকে মারবে এটা খুবই দুঃখজনক। সব কর্মকেই সম্মান দেখাতে হবে। রাংগামাটি সিএনজি বাদ দেওয়া হোক। যে হারে ভাড়া নেয়, মানুষ না পারতে কিছু বলতে পারছে না, শহরে সিটি সার্ভিস নামানোর আহব্বান করছি।

  2. বন্ধ করার কি আছে…ট্যাক্স নিচ্ছে এসব করার জন্য…. আর মারামারির ব্যাপার টা আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আছে তারা দেখবেন।।।অযথা এসব অযৌক্তিক যুক্তি দেখিয়ে নিজের কাজ বন্ধ করার কোন সুযোগ নেই…ট্যাক্স পৌরবাসী দিয়েছে…সিএনজিওয়ালা দেই নি….আর রাংগামাটি শহর টা এমনিতেই পরিস্কার শহর…তাই একটু ময়লা থাকলেও খুব বাজে দেখাবে…আশা করবো দায়িত্ব টা যথাযত ভাবে পালন করবেন….

    1. কথাগুলো ঠিক বলেন নি, ওরা যেভাবে সাধারন জনগনের উপর মারমুখি হয়ে উটেছে সেটাতে সাংবাদিক, শিক্ষক সহ উচ্চপদের কর্মকর্তারাও বাদ পরেনি।

  3. রাঙ্গামাটি সি এন জি বাদ দেওয়া হোক। সি এন জি ড্রাইভার ব্যায়াদব।শহরে সিটি বাস নামানোর জন্য মাননীয় জেলা প্রশাসক/ পৌর মেয়র দের জোড় আবেদন জান্নাচ্ছি।।

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: