নীড় পাতা / ফিচার / ক্যাম্পাস ঘুড়ি / রাঙামাটি মহিলা কলেজের ছাত্রী ছাউনির এ কী হাল !
parbatyachattagram

রাঙামাটি মহিলা কলেজের ছাত্রী ছাউনির এ কী হাল !

রাঙামাটি শহরের পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সামনে মহিলা কলেজের গেইটের সামনেই অবস্থিত যাত্রী ছাউনিটি অনেকদিন ধরে বেহাল দশায় পড়ে আছে। রাঙামাটির খুবই গুরুত্বপূর্ণ এই যাত্রী ছাউনিটির বর্তমান অবস্থা দেখে কেউ ভাবতেই পারে দেখার কেউ নাই। শহরের একমাত্র মহিলা কলেজের গেইটে অবস্থিত যাত্রী ছাউনির বসার স্থানটি ভেঙে গেছে। উপরের ছাউনিও উড়ে গেছে। রোদ বৃষ্টি থেকে রক্ষার জন্য যাত্রীদের বেশ উপকার হতো যাত্রী ছাউনিটি।

সম্প্রতি সরেজমিন গিয়ে দেখা গেছে, খুবই প্রয়োজনীয় যাত্রী ছাউনিটি এখন আর স্থানীয় যাত্রী বা কলেজ পড়ুয়া ছাত্রীদের কোনো কাজেই আসছে না। বসার জায়গা ঠিক নাই, ওপরের ছাউনিও ভেঙে গেছে। যাত্রী ছাউনির সামনে ফেলে রাখা আছে নির্মান সামগ্রী। বর্ষা মৌসমে মহিলা কলেজের ছাত্রীদের ভোগান্তি আরও বেড়ে যায়। অনেকক্ষণ একসাথে কলেজের অনেক ছাত্রীদের বাসের জন্য অপেক্ষো করতে হয় রাস্তায়।

যাত্রী ছাউনির বেহাল দশা নিয়ে মহিলা কলেজের ছাত্রী সুপর্ণা চাকমা বলেন, যাত্রী ছাউনীটি ভালো থাকার সময় আমাদের অনেক উপকার হতো। এখন সেটিতে বসার উপযোগী না হওয়ার কারণে আমাদেরকে অনেক বেকায়দায় পড়তে হয়।

আরেক ছাত্রী নাদিয়া বলেন, আগে রোদ বা বৃষ্টি রেহাই পেতে যাত্রী ছাউনিতে আশ্রয় নিতাম। এখন আর সে সুযোগ নাই। তিনি সংশ্লিষ্টদের ছাত্রী ছাউনিটি দ্রুত মেরামত করে দেওয়ার দাবি জানান।

রাঙামাটি পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিল করিম আকবর করিম বলেন, এ যাত্রী ছাউনি আমি অনেকবার মেরামতের জন্য বলেছি, কিন্তু তাতেও কোনো কাজ হয়নি। রাঙামাটি পৌরসভার মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী বলেন, ‘মহিলা কলেজের সামনের যাত্রী ছাউনিটি আসলে খুবই গুরুত্বপূণ। টানা বর্ষনের জন্য আমরা মেরামতের কাজ করতে পারিনি। অল্প কিছুদিনের মধ্যে যাত্রী ছাউনিটি মেরামত করা হবে।’

Micro Web Technology

আরো দেখুন

‘লেখকদের কোনো জাত থাকে না’

‘আমার ভাষায় আমার সাহিত্য’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে রাঙামাটিতে ‘পার্বত্য চট্টগ্রাম আদিবাসী লেখক’দের তৃতীয় সম্মেলন …

Leave a Reply