ব্রেকিংরাঙামাটিলিড

রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি সড়কে যান চলাচল শুরু

সেনাবাহিনীর বিকল্প সেতু নির্মাণ

নিজস্ব প্রতিবেদক
অবশেষে ১২ দিন পর সোমবার থেকে আবারো রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি সড়কে শুরু হয়েছে যান চলাচল। গত ১২ জানুয়ারি এই সড়কের কুতুকছড়িতে ৬৪ মিটার দীর্ঘ বেইলি সেতু ভেয়ে পড়ার পর যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এতে দুর্ভোগে পড়ে স্থানীয়রাসহ এই সড়ক ব্যবহারীরা। পরে সেনাবাহিনীর উদ্যোগে বিকল্প সেতু নির্মাণের মাধ্যমে এই সড়কে আবারো যান চলাচল শুরু হয়েছে। ডাইভারশান সড়কে ১৪০ ফুটের বেইলি সেতু ও ২৪০ মিটার এপ্রোচ সড়কের নির্মাণ কাজ বাস্তবায়ন করে সেনাবাহিনী। অস্থায়ীভাবে নির্মিত এই সেতু দিয়ে ৫টনের অধিক ভারী যান চলাচলে নিষেধ রয়েছে।

এদিকে সেতু ভেঙে পড়ার পর সড়ক বিভাগ থেকে সেতুটি মেরামতে দুই সপ্তাহ সময় প্রয়োজন জানায়। তবে এখনো পর্যন্ত শেষ হয়নি মুল সেতুটির সংস্কার। সেতুটি সংস্কার কাজ এগিয়ে চলছে। স্থানীয়দের পণ্য পরিবহনের দুর্গতি দেখে গত ১৫ জানুয়ারি সেনাবাহিনীর ২০ ইসিবি বিকল্প সেতু তৈরির কাজ হাত নেয় এবং সোমবার এই বিকল্প সেতু দিয়ে যান চলাচল উন্মুক্ত করে দেয়া হয়।

রাঙামাটি সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী শাহে আরেফিন বলেন, সেনাবাহিনীর তরফ থেকে সাময়িক সময়ের জন্য বিকল্প সেতু নির্মাণ করায় অত্র এলাকার জনসাধারণের জন্য সুবিধা হয়েছে।মূল সেতুর সংস্কার কাজ চলমান রয়েছে, শীঘ্রই সেতুটির ওপর দিয়ে যান চলাচল শুরু হবে।

এদিকে বিকল্প সেতুর মাধ্যমে রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি সড়কে যান চলাচল শুরু হওয়ায় স্বস্তি ফিরেছে ব্যবসায়ী ও জনমনে।আনারস চাষী নুরু মিয়া জানান, আমার বাগানে আগাম উৎপাদিত আনারস নিয়ে বেশ চিন্তায় ছিলাম, এখন সে চিন্তা কেটে গেল। আমাগী এক সপ্তাহের মধ্যেই আমার বাগানে আনারস কটা শুরু হবে।

আনারস ব্যবসায়ী আব্দুল রহিম, বলেন, আগাম উৎপাদিত আনারস খাগড়াছড়ি হয়ে চট্টগ্রাম নিতে প্রতি গাড়িতে খরচ হতো সাড়ে নয় হাজার টাকা। অথচ রাঙামাটি হয়ে চট্টগ্রাম পৌঁছাতে খরচ হয় মাত্র আড়াই থেকে তিন হাজার টাকা। আমি খাগড়াছড়ি হয়ে চট্টগ্রামে ছয় গাড়ি আনারস পাঠিয়েছে যাতে আমার অতিরিক্ত খরচ হয়েছে ৪০ হাজার টাকা। তাই বেশ চিন্তায় ছিলাম, বিকল্প সেতুটি চালু হওয়া আমার পন্য পরিবহন খরচ কমে যাবে। দুয়েক দিনের মধ্যেই এই পথে আনারস পাঠানো শুরু করবো। সড়কটি করে দেয়ার জন্য সেনাবাহিনী এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগকে ধন্যবাদ জানাই।

ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালক জালাল উদ্দিন বলেন, ১০-১২ দিন আমাদের আয় কমে গিয়েছিল, আজ থেকে আবার গাড়ি চলা শুধু হওয়াতে আমাদের আয় আগের মতই হবে। পরিবার নিয়ে ভালোভাবে চলতে পারবো। কাজটি করায় আমরা সেনাবাহিনীর নিকট কৃতজ্ঞ।

অমিও চাকমা বলেন, আগে অনেক কষ্ট হতো; গাড়ি নিয়ে কর্মস্থলে যেতে পারতাম না। বা গেলেও গাড়ি পার করতে অনেক টাকা খরচ ও সময় ব্যয় হতো, সেই কষ্ট থেকে মুক্তি পেলাম।

প্রসঙ্গত, গত ১২ জানুয়ারি রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি সড়কের কুতুকছড়িতে বেইলি সেতুটি পাথরবোঝাই ট্রাকসহ ভেঙে পড়লে তিনজন নিহত হয়। এতে খাগড়াছড়ির সাথে রাঙামাটির যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button