নীড় পাতা / ফিচার / ক্যাম্পাস ঘুড়ি / রাঙামাটি কলেজে সেমিনার ফি নিয়ে জটিলতা
parbatyachattagram

রাঙামাটি কলেজে সেমিনার ফি নিয়ে জটিলতা

রাঙামাটি সরকারি কলেজে সেমিনার ফি নিয়ে জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে। শিক্ষার্থীদের অভিযোগ সেমিনারের সুফল ভোগ না করে, সেমিনার ফি দিব কেন। আর অধ্যক্ষের দাবি সেমিনার ফি মাত্র নেয়া শুরু হয়েছে সুফল পেতে কিছুটা সময় লাগবে। অপর দিকে সেমিনার ফি নিয়ে সেই আলোচনা ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে।

কলেজ সূত্রে জানা যায়, রাঙামাটি সরকারি কলেজের সে সকল বিভাগ আছে তাদের প্রতিটি শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে সেমিনার ফি নেয়া হচ্ছে এই বছর থেকে। সে ফি দিয়ে স্ব স্ব বিভাগের সেমিনারের অফিস সহকারি, এমএল এসএস’র বেতন বই পত্র কিনা, প্রতিদিন পত্র পত্রিকার ব্যবস্থা, সেমিনারে শিক্ষর্থীরা পড়াশোনার জন্য প্রয়োজনীয় টেবিল চেয়ারের ব্যবস্থা করা অর্থাৎ একটি লাইব্রেরিতে যে ধরনের সুবিধা পাওয়া যায় সে ধরনের ব্যবস্থা করা এবং দেওয়ালিকা সহ বিভিন্ন সৃজনশীল কাজে ব্যয় করার কথা।

দেশের বিভিন্ন অনার্স কলেজে এই ফি নিয়ে সুবিধা নেয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। রাঙামাটি সরকারি কলেজেও এই ব্যবস্থা বিভিন্ন অনার্স বিভাগে আগে থেকে থাকলেও সবগুলোতে ছিল না। আর এই বছর থেকে সবগুলো অনার্স বিভাগের জন্য প্রতিবছর ৪০০/-টাকা করে চার বছরে মোট ১,৬০০/-টাকা সেমিনারের জন্য আদায়ের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এছাড়াও যারা ইতিপূর্বে প্রথম দ্বিতীয় কিম্বা তৃতীয় বর্ষে সে ফি পরিশোধ করে নাই তারা যেন তা এক বর্ষ থেকে অন্যবর্ষে ভর্তির সময় তা পরিশোধ করে সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছে কলেজে কর্তৃপক্ষ।

যার প্রতিফলন হয়েছে অনার্স ৩য় বর্ষে ভর্তির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশে। বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পরপরই সেমিনার কি, কেন নেয়া হবে, তার সুবিধা পাওয়া যায় না কেন সে বিষয় নিয়ে প্রচুর আলোচনা শুরু হয় শিক্ষার্থীদের মাঝে, যা গড়িয়েছে ফেসবুক স্ট্যাটাসে। এতে হয় নানা প্রকারের কমেন্ট। শিক্ষার্থীদের পক্ষে বিপক্ষে যুক্তির কমেন্টের পাশাপাশি এতে সেমিনার ফি’র পক্ষে কমেন্ট করেন অনেক শিক্ষকও।

শিক্ষার্থীদের সূত্রে জানা যায়, যে সকল বিভাগের শিক্ষার্থীরা আগে এই ফি দিত, তারা সেমিনার সুবিধার মধ্যে শুধু বছরে দুইটি পাঠ্যবই সেমিনার থেকে এনে পড়ার সুযোগ পেতো, তাও ফেরতযোগ্য। এই বিষয়ে শিক্ষার্থীদের কাছে জানতে চাইলে তারা বলেন, আমরা সেমিনার ফি দিব, কিন্তু সে সেমিনার ফি’র পূর্ণাঙ্গ সুবিধাও চাই।

রাঙামাটি সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী তনয় দেওয়ান জানান, আমাদের কাছ থেকে যে সেমিনার ফি নেওয়া হচ্ছে তার বিপরীতে আমরা সুবিধা চাই। কলেজের কোন বিভাগেই তো আলাদা সেমিনার কক্ষ নাই।

আর এক শিক্ষার্থী সুমন দাশ জানান, আমরা সেমিনার ফি’র বিপরীতে কলেজ থেকে বছরে ফেরতযোগ্য দুইটি পাঠ্যবই ছাড়া আর কোনই সুযোগ সুবিধা পাই না। যেখান আলাদা সেমিনার কক্ষ থাকার কথা থাকলেও সেটিও নাই। আর অন্যান্য সুযোগ সুবিধার কথা বাদই দিলাম। কলেজে সেমিনার ফি এর বিপরীতে পূর্ণাঙ্গ সুযোগ সুবিধা দ্রুত চালু হবে এমনটা দাবি জানাই কর্তৃপক্ষের কাছে।

রাঙামাটি সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মো. মঈন উদ্দিন জানালেন, কলেজে আগে সবগুলো বিভাগে সেমিনার ফি নেয়া হতো না। কিন্তু আমি চাই দেশের অন্যান্য কলেজের মতো আমাদের কলেজও এগিয়ে যাক। কলেজে যেসব বিভাগে সেমিনার ফি নেয়া হতো না সেসব বিভাগেও সেমিনার ফি নেয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। একটা সেমিনার থেকে শিক্ষার্থীদের অনেককিছু শেখার রয়েছে।

শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে যে সেমিনার ফি নেওয়া হবে তা শুধু সেমিনানের কাজে স্ব স্ব বিভাগ খরচ করবে। এতে বাইরের থেকে টাকা আসা বা বাইরে যাওয়ার সুযোগ নাই। যার ব্যবস্থা করবেন স্ব স্ব বিভাগ। সেমিনারের জন্য একটি আলাদা কক্ষ প্রয়োজন, তেমনি সকল খরচ বহনের জন্যও একটি ফান্ডও প্রয়োজন। কলেজে কক্ষ সংকটে ক্লাসগুলো ঠিকমত করা কষ্ট কর হয়ে যাচ্ছে। তবে কলেজের নির্মাণাধীন নতুন ভবনটা পেলে তার সংকট অনেকটা কাটবে বলে আশা করছি। তখন যেসব অনার্স বিভাগে আগে থেকে সেমিনার ফি নিয়ে আসছে তাদের যদি উপযুক্ত ফান্ড তৈরি হয় তাহলে তারা সেখানে তাদের সেমিনারের পূর্ণাঙ্গ সুবিধা দিতে পারবে। আর সেসব বিভাগ সেমিনারের ফি নতুন করে নিচ্ছে তারাও পূর্ণাঙ্গ সুবিধা দিতে না পারলেও আপাতত কিছু কিছু সুবিধা দিবে সে বিষয়ে আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি।

কলেজের যে কোন সুবিধা অসুবিধা শিক্ষার্থীরা ফেসবুক ওয়ালে না লিখে অধ্যক্ষের সাথে যোগাযোগ করাসহ কলেজে কোন প্রকার সুবিধা নিতে রশিদ ছাড়া কাউকে টাকা না দেয়ার আহবান জানান তিনি।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বান্দরবানে অপহৃত ৬ পাহাড়ি মুক্ত

অপহরণের ২৪ ঘন্টা পর মুক্তি পেয়েছে বান্দরবানের রুমা থেকে অপহৃত ৬ পাহাড়ী। সোমবার বিকাল ৪টার …

Leave a Reply