নীড় পাতা / পাহাড়ের অর্থনীতি / রাঙামাটির সবজির বাজারে হঠাৎ আগুন
parbatyachattagram

রাঙামাটির সবজির বাজারে হঠাৎ আগুন

হঠাৎই সবজির দাম বেড়েছে রাঙামাটির কাঁচা বাজারে। ফলে বিপাকে পড়েছে নি¤œ আয়ের মানুষ। বাজারে সর্বনি¤œ সবজির দাম ৪০ টাকা।

রাঙামাটির বনরূপা বাজারে গিয়ে দেখা যায়, আলু ২০ থেকে ২৫ টাকা, পেঁপে ৩০-৩৫ টাকা কেজি বিক্রয় হচ্ছে। সব থেকে বেশি দামে বিক্রয় হচ্ছে বরকটি, যার প্রতি কেজির মূল্য ৮০ টাকা, এছাড়া পটল, গুঁড়ি কচু, কাঁকরোল পাওয়া যাচ্ছে ৪০ টাকা কেজি দরে।
প্রকার ভেদে চিচিঙ্গা বিক্রয় হচ্ছে ৬০-৪০ টাকা কেজিতে। করলা ৫০ টাকা কেজি, ঝিঙ্গে প্রতি কেজি ৬০ টাকা এবং ওল কচুও একই দরে বিক্রয় করতে দেখা গেছে।

দিন মজুর রহিম মিয়া জানান, সারাদিন কাজ করে যে আয় হয় পাঁচ জনের সংসারের খরচ চালাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। ৪০ টাকার কমে কোন সবজি বাজারে নেই, ১শ টাকায় দুই কেজি সবজিও পাওয়া যায় না। এবার চিন্তা করে দেখেন আমরা কিভাবে চলবো, একমাত্র আলুর ওপরে বেঁচে আছি।

সজল দাশ পেশায় ভ্রাম্যমান মাছ বিক্রতা। তিনি বলেন, জেলেদের থেকে মাছ কিনে এনে বাজারে বিক্রয় করে যা লাভ হয় তা দিয়ে সংসার চলে না, বাজারে সবছির অনেক দাম, আগে শুনতাম শাক গরীবের খাবার, এখন এক আঁটি শাকের দাম ৩০ টাকা, যা একবেলাও ঠিক মত হয় না। ভাল কোনও সবজি তো কেনার কথা ভাবতেও পারি না। কিভাবে সংসার চালাবো বুঝতে পারছি না।

কেন সবজির দাম এতো বেড়েছে জানতে চাইলে বনরূপা কাঁচা বাজারের ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর সেটা বলতে অপারগতা প্রকাশ করে বলেন, আমরা বেশি দামে কিনে আনি তাই বেশি দামে বিক্রি করতে হয়। প্রতি কেজিতে কত টাকা লাভ হয় সেটাও তিনি বলবেন না বলে জানান।

তবে অপর ব্যবসায়ী রাজু দাশ বলেন, বন্যার কারণে সবজি খেত নষ্ট হয়ে যাওয়াতে হঠাৎ সবজির সরবরাহ কমে গেছে, তাই এখন সবজির বাজার চড়া। সবজি উৎপাদন না বাড়া পর্যন্ত এ দাম কমার কোনও সুযোগ দেখছি না। আমাদের পাইকারি বাজার থেকে রীতিমত যুদ্ধ করে সবজি কিনতে হয়।

বাজারে আসা অধিকাংশ ক্রেতা অভিযোগ করেন ব্যবসায়ীরা প্রকার ভেদে প্রতি কেজি সবজিতে তাদের ক্রয় মূল্য থেকে ১৫-২০ টাকা বেশিতে বিক্রয় করে অধিক মুনাফা হাতিয়ে নিচ্ছে। এ ব্যাপারে প্রশাসনের নজরদারির দাবি জানান সাধারণ ক্রেতারা।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

খাগড়াছড়িতে চারদিনের আয়কর মেলা শুরু

পাহাড়ি জেলা খাগড়াছড়িতে শনিবার সকালে শুরু হয়েছে চার দিনব্যাপী আয়কর মেলা। খাগড়াছড়ি অরুণিমা কমিউনিটি সেন্টারে …

Leave a Reply