করোনাভাইরাস আপডেটব্রেকিংরাঙামাটিলিড

রাঙামাটিতে করোনা শনাক্ত বেড়ে ৩৮৫

নতুন শনাক্তে সদর ১০, কাপ্তাই ৬, বিলাইছড়ি ৪,কাউখালী ২

পার্বত্য জেলা রাঙামাটিতে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে নভেল করোনা ভাইরাসের (কভিড-১৯) সংক্রমণ। রোববার বিকালে চট্টগ্রাম ভেটেনারি এন্ড অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) থেকে আসা ৫১টি নমুনা রিপোর্টের ২২ জনের পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। নতুন শনাক্তদের মধ্যে সদর উপজেলার ১০ জন, কাপ্তাই উপজেলার ৬ জন, বিলাইছড়ি উপজেলার ৪ জন ও কাউখালীর উপজেলার ২ জন রয়েছেন। এনিয়ে রাঙামাটিতে মোট করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৮৫ জনে।

বিষয়টির নিশ্চিত করে জেলা সিভিল সার্জন অফিসের করোনা বিষয়ক ফোকাল পারসন ও মেডিকেল অফিসার ডা. মোস্তফা কামাল জানিয়েছেন, রোববার বিকেলে সিভাসু থেকে আসা রিপোর্টে নতুন করে রাঙামাটিতে আরও ২২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে রাঙামাটি সদরের ১০, কাউখালীর ২ ও বিলাইছড়ির ৪ ও কাপ্তাইয়ের ৬ জন রয়েছেন। এ পর্যন্ত রাঙামাটিতে ৩৮৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

এদিন আসা রিপোর্টে গত মঙ্গলবার করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া জেলা শহরের তবলছড়ি এলাকার বাসিন্দা ও আওয়ামীলীগ কর্মী সুরত আলীর নমুনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে বলে জানিয়েছেন এই চিকিৎসক। অর্থাৎ তিনি করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা গেলেও করোনা আক্রান্ত ছিলেন না।

উল্লেখ্য, ৬ মে দেশের সবশেষ জেলা হিসেবে রাঙামাটিতে প্রথম ধাপে চারজনের দেহে কভিড-১৯ শনাক্ত হয়। পরবর্তীতে এ সংখ্যা ক্রমান্বয়ে দাঁড়িয়েছে ৩৮৫ জনে। তবে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে রাঙামাটি শহরেই। এখন পর্যন্ত আক্রান্তের হিসাবে সবচেয়ে বেশি ২২৪ শনাক্ত নিয়ে ঝুঁকিতে রয়েছে রাঙামাটি শহর। অন্যদিকে ৮১ জন নিয়ে দ্বিতীয় ধাপে রয়েছে কাপ্তাই। এখন পর্যন্ত জেলায় সবচেয়ে কম সংক্রমণ হওয়া উপজেলা হলো বরকল, সেখানে মাত্র ১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

রোববার পর্যন্ত জেলায় ১৬৬ জন করোনা রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। বর্তমানে জেলায় প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে আছেন ৬ জন এবং করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৬ জন। রাঙামাটিতে করোনা প্রাদুর্ভাব শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত জেলার ২ হাজার ২২১ জনের নমুনা সংগ্রহ করা পাঠানো হয়েছে। এরমধ্যে এ পর্যন্ত রিপোর্ট এসেছে ২ হাজার ১১১ জনের। অপেক্ষমান রিপোর্টের সংখ্যা ১১০টি।

MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

এই সংবাদটি দেখুন
Close
Back to top button