করোনাভাইরাস আপডেটব্রেকিংরাঙামাটিলিড

যে করোনা যোদ্ধাদের মনে রাখেনা কেউই !

ফোরকান, মাসুদ,রাখাল , ইউসুফ: তারা কেউ গ্রাম পুলিশ কেউ দফাদার আবার কেউ চৌকিদার। তাদের সাথে আরোও অনেকে আছে। যারা এই সংকটময় সময়ে ঘরে ঘরে ত্রান পৌঁছে দেবার গুরু দায়িত্ব কাঁধে নিয়েছেন।
রাঙামাটি জেলার কাপ্তাই উপজেলার ১ নং চন্দ্রঘোনা ইউনিয়নে কর্মরত এই সব গ্রাম পুলিশ দফাদার, এবং চৌকিদাররাও বিগত এক মাস ধরে স্হানীয় জনপ্রতিনিধিদের সাথে সরকারের দেওয়া ত্রান ঘরে ঘরে পৌঁছে দিচ্ছেন।
কথা হয় গ্রাম পুলিশ মাসুদের সাথে, তিনি জানান ১ নং চন্দ্রঘোনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরীর বেবীর নির্দেশনা মোতাবেক আমরা স্হানীয় ইউপি সদস্যদের নিয়ে কাঁধে করে ঘরে ঘরে সরকারি সহায়তা পৌঁছে দিচ্ছি। এই কাজে তাদের ইউনিয়নের সকল গ্রাম পুলিশ, চৌকিদার এবং দফাদাররাও এগিয়ে এসেছে।
তারা জানান, খুব আনন্দ নিয়ে তারা এই কাজ করছেন, কারন এই সংকটকালীন মূহুর্তে আমরা হতদরিদ্রের পাশে দাঁড়াতে পেরেছি। ১ নং চন্দ্রঘোনা ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী বেবী জানান, সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিতকল্পে তাঁর ইউনিয়নের প্রত্যেকটি ওয়ার্ডে তিনি এবং তাঁর পরিষদের ইউপি সদস্যরা বিগত এক মাস যাবত সরকারি ত্রান সহায়তা হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে পৌঁছে দিচ্ছেন।
তাদের এই কাজে সার্বক্ষণিক সহায়তা প্রদান করছেন গ্রাম পুলিশ, দফাদার এবং চৌকিদাররা। তিনি তাদের কার্যক্রমের প্রশংসা করেন। করোনা যুদ্ধে এই সব গ্রাম পুলিশ, দফাদার এবং চৌকিদাররাও সামিল হয়েছেন জনসেবায়। তাদের এই কার্যক্রম আমজনতার প্রশংসা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছেন।
MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

এই সংবাদটি দেখুন
Close
Back to top button