নীড় পাতা / ব্রেকিং / যুবলীগ নেতা ‘হত্যাচেষ্টা’ মামলায় ছাত্রলীগ নেতা মীর শাকিল গ্রেফতার
parbatyachattagram

যুবলীগ নেতা ‘হত্যাচেষ্টা’ মামলায় ছাত্রলীগ নেতা মীর শাকিল গ্রেফতার

রাঙামাটিতে যুবলীগ নেতা নাসির হত্যাচেষ্টা মামলার এজাহারভুক্ত আসামী জেলা ছাত্রলীগের সদস্য মীর শাকিল কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার দুপুর আড়াইটার দিকে রাঙামাটি শহরের তবলছড়ি বাজার থেকে তাকে গ্রেফতার করার কথা নিশ্চিত করেছে যুবলীগ নেতা নাসিরের দায়ের করা মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা ও কোতয়ালি থানার উপ পুলিশ পরিদর্শক মোঃ জিয়াউল হক।

পুলিশের এই কর্মকর্তা জানিয়েছেন, গ্রেফতারকৃত মীর শাকিল ২৭ জানুয়ারি যুবলীগের ৮ নং ওয়ার্ড কমিটির সাধারন সম্পাদক মোঃ নাসিরকে ‘হত্যাচেষ্টা’ মামলার এজাহারভূক্ত ৫ নং আসামী এবং এরপরে ৬ ফেব্রুংয়ারি রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের মারধরের ঘটনায় আহত মেহেদী হাসানের থানায় জমা দেয়া অভিযোগপত্রে তার নাম আছে।’

গ্রেফতারকৃত মীর শাকিলকে বিকালেই রাঙামাটি জেলা জজ আদালতে হাজির করা হলে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে বলেও জানিয়েছেন এই পুলিশ কর্মকর্তা। তিনি জানিয়েছেন, অন্য আসামীদের ধরার জন্যও আমাদের অভিযান অব্যাহত আছে।

রাঙামাটি জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সালাউদ্দিন টিপু জানিয়েছেন,মীর শাকিল জেলা ছাত্রলীগের সদস্য এটা ঠিক। তবে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি-সম্পাদকসহ কয়েকজন গুরুত্ব্পূর্ণ নেতা ঢাকায় আছেন। তারা ফিরে এলে মীর শাকিলের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

প্রসঙ্গত, গত ২৭ জানুয়ারি রাঙামাটি শহরের প্রত্যাশা ক্লাবে ডেকে নিয়ে যুবলীগ নেতা নাসিরকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে কয়েকজন ছাত্রলীগ ও যুবলীগ কর্মী। আঘাতে পায়ের রগ কেটে যাওয়া নাসিরকে গুরুতর আহত অবস্থায় হামলাকারিরাই রাঙামাটি সদর হাসপাতালের সামনে ফেলে যায়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে চিকিৎসকরা তাকে উন্নয়ন চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রামে পাঠান। সেখানেই একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন নাসির। হামলার ঘটনার ৩ দিন পর নানান টালাবাহানা শেষে ৩০ জানুয়ারি কোতয়ালি থানায় নাসিরের স্ত্রী সালেহা আক্তারের তার স্বামীকে ‘হত্যাচেষ্টা’ মামলা গ্রহণ করে পুলিশ। এই মামলায় জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল জব্বার সুজনসহ ৮ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীকে আসামী করেন তিনি। আসামীরা হলেন জেলা যুবলীগের সহ সম্পাদক মিজানুর রহমান, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি ইকবাল হোসেন,৭ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ আরিফ,পৌর যুবলীগের সাধারন সম্পাদক আব্দুল ওয়াহাব খান,জেলা ছাত্রলীগের সদস্য মীর শাকিল এবং মোঃ আজমীর। মামলা দায়ের করার ১২ দিনেও কোন আসামী গ্রেফতার না হওয়ায় ৯ ফেব্রুয়ারি রাঙামাটি জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন করে আহত নাসিরের মা,স্ত্রী,সন্তান ও ভাইবোনসহ পরিবারের সদস্য ও প্রতিবেশীরা। হামলার ঘটনার ১৩ দিন পর আজ ১০ ফেব্রুয়ারি এই মামলার কোন আসামী গ্রেফতার হলো।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

ফোন হারিয়েছে বলে মোটর-সাইকেলে তুলে নেয় স্কুলছাত্রীকে, অতপর …

খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় পঞ্চম শ্রেণির স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত শহিদুল ইসলাম …

Leave a Reply