ব্রেকিংরাঙামাটিলিড

‘যুবকদের কর্মসংস্থান করতে দেশের বিভিন্ন জেলায় জেলায় শিল্প কারখানা গড়ে তুলতে হবে’

‘শিক্ষা, কাজের সংগ্রামে দলীয়করণ-লুটপাট-সাম্প্রদায়িকতা-সা¤্রাজ্যবাদ রুখো’- এই স্লোগানকে ধারণ করে বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন রাঙামাটি জেলা শাখার ৬ষ্ট জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার সকাল দশটায় রাঙামাটি জেলা শিশু একাডেমী মিলনায়তনে জাতীয় সঙ্গিত পরিবেশন ও জাতীয় পতাকা উত্তেলনের মধ্য দিয়ে সম্মেলনের শুভ উদ্বোধন করা হয়।

এরপর একাডেমী মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয় গণসঙ্গিত পরিবেশন ও আলোচনা সভা। এসময় সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। এতে জেলা সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির চেয়ারম্যান পঞ্চু দাশ গুপ্ত’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ যুব ইউনিয়নের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ আব্দুল মান্নান।

জেলা যুব ইউনিয়ন নেতা মিল্টন বিশ্বাসের সঞ্চালনায় এসময় আরও বক্তব্য দেন- বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি রাঙামাটি জেলার সভাপতি সমীর কান্তি দে, সাধারণ সম্পাদক অনুপম বড়–য়া শংকর, সদস্য আশীষ দাশ গুপ্ত, যুব ইউনিয়নের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সভাপতি আমির হোসেন আমু, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সহ-সভাপতি সনত বড়–য়া, রাঙামাটি জেলা উদীচীর সভাপতি অমলেন্দু হাওলাদার, জেলা যুব ইউনিয়নের সভাপতি এম জিসান বখতেয়ার, জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সদস্য অভিজিৎ বড়–য়া। এতে স্বাগত বক্তব্য দেন শংকর কুমার দে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে যুব ইউনিয়নের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ আব্দুল মান্নান বলেন, ‘আজ এ দেশের যুব সমাজ ইয়াবা ও অন্যান্য মাদকাসক্তের মাধ্যমে নষ্টের দিকে ধাবিত হচ্ছে। চাকরি না পেয়ে তারা বিভিন্ন ধরণের অপকর্মের সাথে লিপ্ত হয়ে পড়েছে। এই যুব সমাজকে ঐক্যবদ্ধ করে আমাদেরকে এগিয়ে যেতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘আজ সারাদেশে সাড়ে তিন কোটি মানুষ বেকার জীবনযাপন করছে। আমাদের এই দেশে স্বাধীনতার ৪৭ বছরেই সুশাসন প্রতিষ্ঠিত হয়নি। আমরা একটি বেকারত্বের দেশে বাস করছি। এই যুবকদের কর্মসংস্থান করতে দেশের বিভিন্ন জেলায় জেলায় শিল্প কারখানা গড়ে তুলতে হবে। আমরা চাই এদেশের সমস্ত জনগোষ্ঠী তার যোগ্যতা অনুযায়ী প্রতিষ্ঠিত হোক। এই দেশের বেকারত্বের মধ্যে জীবনযাপন করা যুব সমাজ নিয়ে আমরা আজ উদ্বিগ্ন।’

মান্নান বলেন, বর্তমানে এদেশে রোহিঙ্গা সংকট একটি ব্যাধি হয়ে দাঁড়িয়েছে। রোহিঙ্গাদের নিজ দেশের পাঠানোর জন্য সরকারকে আন্তর্জাতিক মহলে আরও জোর প্রয়োগ করতে হবে। আসন্ন নির্বাচনে জনগণের ভোটাধিকার নিশ্চিত করার জন্য নির্বাচন কমিশনকে আহ্বানও জানিয়েছেন তিনি।

এসময় বক্তারা বলেন, চাকরির সংকট নিরসন ও যুবকদের অধিকার আদায়ের জন্য যুবকদেরই এগিয়ে আসতে হবে। বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন প্রতিষ্ঠাকালীন সময় থেকেই যুবকদের সাথে নিয়ে অধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে আন্দোলন করে যাচ্ছে। আগামী দিনেও এদেশের যুবকদের সাথে সকল আন্দোলন ও ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষে যুব ইউনিয়ন কাজ করে যাবে।

আলোচনা সভা শেষে দুপুরের দিকে সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশন কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে জেলা যুব ইউনিয়নের সভাপতি এম জিসান বখতেয়ারকে পুনরায় সভাপতি ও মিল্টন বিশ্বাসকে সাধারণ সম্পাদক এবং শংকর কুমার দে-কে সাংগঠনিক সম্পাদক করে ২১ সদস্য বিশিষ্ট নতুন জেলা কমিটি গঠন করা হয়।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button