ব্রেকিংরাঙামাটি

‘যুগোপযোগী সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে ইমামরাই মানুষকে উৎসাহিত করতে পারে’

‘বর্তমান সরকার যুগোপযোগী একটি সিদ্ধন্ত নিয়েছে। কোরবানীর দিনে সারা দেশে প্রচুর পরিমাণে পশু কোরবানী করা হয়। তাই সরকার নিদিষ্ট স্থানে কোরবানী করার লক্ষে কোরবানী দাতাদের জন্যে ব্যবস্থা করেছেন। এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে পৌরসভা জনসাধারণের সার্বিক সুবিধার কথা চিন্তা করে সকল ব্যবস্থা ইতিমধ্যে গ্রহণ করেছে। এখন শুধু দরকার সাধারণ কোরবানী দাতাদেরকে উৎসাহিত করা। আর এই কাজ ইমামরাই পারবে।’

মঙ্গলবার দুপুরে আসন্ন কোরবানী উপলক্ষে রাঙামাটি পৌরসভার আয়োজনে অনুষ্ঠিত ইমামদের সাথে মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্যে রাঙামাটি পৌরসভার মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী এসব কথা বলেন।

মেয়র বলেন, বিশে^র বিভিন্ন ইসলামী দেশ গুলোতে একটি নিদিষ্ট স্থানে পশু কোরবানী করা হয়ে থাকে। এটি পরিবেশের জন্যে খুবই উপকারী। তাই সে ব্যবস্থা আমাদের এখনই চালু করতে হবে। তবে কিছুটা সময় লাগলেও আশা করি আমরাও এমন একটি সুষ্ট ও সুন্দর কোরবানীর ব্যবস্থা করতে পারবো। এ বিষয়ে ইমামগণ যেনো তাদের নিজস্ব মসজিদে প্রচার-প্রচারণা করেন সে বিষয় মেয়র সকলকে আহ্বান জানান।

তিনি আরও বলেন, কোরবানী পশু যেনো নিদিষ্ট স্থানে সুষ্ট ও সুন্দর ভাবে জবাই করতে পারে সে জন্য পৌরসভার পক্ষ থেকে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এছাড়া কোরবানী পশুর বর্জ্য যেনো অতিদ্রুত অপসারণ করা হয়, যে জন্যে পৌরসভার পক্ষ থেকে সেবকদেরকে প্রস্তুত করে রাখা হয়েছে। আশা করছি, সুষ্ট ও সুন্দরভাবে কোরবানী করতে পারবে শহরের মানুষ।

মতবিনিময় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন পৌরসভার প্যানেল মেয়র ও ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. জামাল উদ্দিন, ৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কালায়ন চাকমা, ৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মিজানুর রহমান বাবু, ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পুলক দে, ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর বিল্লাল হোসেন টিটু, পৌরসভার স্যানিটারী ইন্সপেক্টর মো. ফিরোজ আল মাহমুদসহ বিভিন্ন মসজিদের ইমামগণ।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button