বান্দরবান

ম্রো ও ত্রিপুরা পল্লীতে খাদ্য সহায়তা বাইশারী ইউপি চেয়ারম্যানের

লকডাউনে গৃহবন্দী বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারীর দূর্গম জনপদের ম্রো ও ত্রিপুরা জনগোষ্ঠীর ১৫০ পরিবারের হাতে হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দিয়ে অসম্ভবকে সম্ভব করেছেন ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আলম। শনিবার সকালে গাড়ী যোগাযোগ না থাকায় পাঁয়ে হেটে প্রায় ২০ কিলোমিটার আঁকাবাঁকা পাহাড়ী পথ ও ঝিরি পাড়ি দিয়ে তিনি ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে এ খাদ্য সামগ্রী তাদের হাতে হাতে পৌছে দেন।

সকাল ১০টার দিকে পাড়ায় তিন দশক পর কোন চেয়ারম্যানকে দেখতে পেয়ে অভিভূত হয়ে পড়েন ম্রো পল্লীর লোকজন। তাদেরই একজন সাবেক মেম্বার নেলসন ম্রো। তিনি এই প্রতিবেদককে জানান, আশির দশকে তৎকালীন চেয়ারম্যান মরহুম নুরুল হক পাঁয়ে হেটে তাদের পাড়ায় গিয়েছিলেন। এরপর আর কোন জনপ্রতিনিধি তাদের সার্বিক অবস্থা দেখতে স্বশরীরে উপস্থিত হননি। করোনা সংকটে গৃহবন্ধী হয়ে পড়া ম্রো ও ত্রিপুরা পল্লীর বাসিন্দাদের দেখতে পাঁয়ে হেটে বাইশারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আলমই উপস্থিত হয়েছেন।
নয়া পাড়ার বাসিন্দা রংলায় কারবারী ও সিনাই ত্রিপুরা পল্লীর সত্য চন্দ্র ত্রিপুরা জানান, ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে খাদ্য সহায়তা পেয়ে খুবই খুশি। দুর্দিনে চেয়ারম্যান তাদের পাশে দাড়িয়েছেন, এ জন্য তাকে ধন্যবাদ জানাই।
বাইশারী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আলম এই প্রতিবেদককে জানান, দূর্গম জনপদে বসবাসরত ম্রো ও ত্রিপুরা সম্প্রদায়ের লোকজন কত কষ্ট করে পাহাড়ে বাড়ীঘর নির্মাণ করে বসবাস করছে এবং যাতায়তের করূন দূর্দশা তা আজ স্বচক্ষে দেখলাম। যাতায়ত ব্যবস্থা না থাকায় দীর্ঘ পাহাড়ী আঁকাবাঁকা ও ঝিরি পথ পাঁয়ে হেটে পল্লীতে পৌঁছতে হয়েছে। কিছুটা স্বার্থক আমি। অন্তত গৃহবন্ধী ১৫০ পরিবারের হাতে হাতে খাদ্য সহায়তা পৌছে দিতে পেরেছি।
তিনি বলেন- করোনা সংকটের দিনগুলোতে ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে প্রায় দেড় হাজার পরিবারের কাছে ইতিমধ্যে খাদ্য সহায়তা পৌছে দিয়েছেন। ভবিষ্যতেও এ ধরনের মানবিক সহায়তা অব্যাহত থাকবে।
খাদ্য সামগ্রী প্রদানকালে বাইশারী ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড আলীক্ষ্যং ইউপি সদস্য আবুল হোছেন, ২নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য শাহাব উদ্দিন, ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি জয়নাল আবেদীন, বাইশারী ইউনিয়ন যুবলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুল কবির রাশেদ, স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ উল্লাহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

fifteen − 1 =

Back to top button