রাঙামাটি

মায়া ভরা ‘মায়ার ঝুঁড়ি’

কাপ্তাইয়ের শিল্পীদের পাশে ইউএনও মুনতাসির

কাপ্তাই প্রতিনিধি
কঠোর লকডাউনের ফলে দেশের অন্যান্য সেক্টরের মতো শিল্প, সাহিত্য অঙ্গনেও নেমে আসে চরম অনিশ্চয়তা। পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত কার্যত বন্ধ রয়েছে সকল প্রকার সাংস্কৃতিক, ধর্মীয় আচার ও সামাজিক অনুষ্ঠান। এমতাবস্থায় বেকার হয়ে বসে আছেন কাপ্তাইসহ দেশের অনেক শিল্পী এবং যন্ত্রশিল্পী। তাই করোনাকালীন সময়ে কাপ্তাই উপজেলার শিল্পীদের প্রতি ‘মায়ার ঝুঁড়ি’ নিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছেন কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির সভাপতি মুনতাসির জাহান এবং কাপ্তাই উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির নির্বাহী কমিটির সদস্য ও কিছু সাধারণ সদস্য।

গত মঙ্গলবার বিকেল থেকে রাতঅবধি ১৫ জন শিল্পীর দুয়ারে দুয়ারে গিয়ে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রী পৌঁছে দেন উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক ঝুলন দত্ত। এসময় কাপ্তাই উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির নির্বাহী সদস্য জয়সীম বড়ুয়া, যন্ত্রসংগীত বিভাগের সদস্য অভিজিৎ দাশ কিষান উপস্থিত ছিলেন। কাপ্তাই উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির যুগ্ম সম্পাদক মংসুইপ্রু মারমা ও বিপুল বড়ুয়া জানান, করোনাকালীন সময়ে তারা শিল্পকলা একাডেমির সদস্যদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছেন। একাডেমির সদস্য আনিছুর রহমান ও মাহাবুব হাসান বাবু জানান, করোনাকালীন সময়ে অনেক শিল্পী বেকার হয়ে ঘরে বসে আছে। এসময়ে তাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য তারা চেষ্টা করছেন।

কাপ্তাই উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে চন্দ্রঘোনা ক্রিশ্চিয়ান হাসপাতালের পরিচালক ডা. প্রবীর খিয়াং ও কাপ্তাই নৌ-বাহিনী স্কুল এন্ড কলেজের উপাধ্যক্ষ এম জাহাঙ্গীর আলম জানান, করোনাকালীন সময়ে তাদের পাশে দাঁড়ানোটা একটা মানবিক কাজ। কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির সভাপতি মুনতাসির জাহান বলেন, এই উদ্যোগের সাথে অনেকেই শিল্পীদের পাশে দাঁড়িয়েছেন, তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। এই কঠিন সময়ে তারা শিল্পীদের প্রতি মানবতার হাত প্রসারিত করার চেষ্টা করেছেন শুধু।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button