বান্দরবানব্রেকিং

মাদরাসা শিক্ষক ও তার স্ত্রীর উপর হামলা

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে এক মাদরাসা শিক্ষক ও তার স্ত্রীর উপর বর্বরোচিত হামলার ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার বিকালে নাইক্ষ্যংছড়ি সদর উপজেলার উত্তর বিছামারা এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

হামলায় আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা হলেন উত্তর বিছামারা এলাকার দারুল এরফান ওয়ামাহাদুল কোরআন হেফজখানার শিক্ষক হাফেজ মাহফুজুর রহমান (৩৪) ও তাঁর স্ত্রী আরেফা খাতুন (৩০)।

আহতের পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ২৭০নং নাইক্ষ্যংছড়ি মৌজার বিছামারা এলাকায় ৬৪নং খতিয়ান মুলে কিনা সাড়ে ৭ শতক জায়গায় বসবাস করে আসছেন হাফেজ মাহফুজুর রহমান। ওই জায়গার পাশাপাশি স্বামী সংসার নিয়ে থাকেন মাহফুজের দুই সৎ বোন।

মাহফুজ সাংবাদিকদের জানান- প্রায় সময় তার জায়গার গাছগাছালি ও ফল নষ্ট করে থাকেন রশিদ আহমদ ও কবির আহমদ। একইভাবে মঙ্গলবার বিকালে জায়গার গাছগাছালি নষ্ট করার প্রতিবাদ করলে রশিদ ও কবির দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে হাফেজ মাহফুজ ও তার স্ত্রীর উপর হামলা চালায়। এসময় তারা রক্তাক্ত ও ফাটা জখম হয়ে মাটিতে লুটে পড়েন। এসময় প্রত্যক্ষদর্শী ও পরিবারের লোকজন তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান।

নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক তপন বড়––য়া জানান, আহতদের মধ্যে আরেফা খাতুনের মাথায় সেলাই করা হয়েছে এবং মাহফুজের নাক ও মুখে রক্তাক্ত জখম হয়েছে। বর্তমানে তারা হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে স্থানীয় ইউপি মেম্বার ফকির আহমদ বলেন- পারিবারিক বিরোধের জের ধরে দুপক্ষের মধ্যে হামলার ঘটনা ঘটেছে। বর্তমানে মাহফুজ ও তার স্ত্রী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

এদিকে আহতের স্বজন ছৈয়দ আলম জানান- ঘটনার পর পর রক্তাক্ত অবস্থায় আহতদের নাইক্ষ্যংছড়ি থানায় নেওয়া হলে কর্তব্যরত কর্মকর্তা তাদের প্রথমে চিকিৎসা নেওয়ার পরামর্শ দেন। চিকিৎসার পর লিখিত অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন পুলিশ।

MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

এই সংবাদটি দেখুন
Close
Back to top button