নীড় পাতা / পাহাড়ের সংবাদ / খাগড়াছড়ি / মাটিরাঙ্গা সংঘর্ষে নিহতদের দাফন সম্পন্ন, মামলা হয়নি
parbatyachattagram

মাটিরাঙ্গা সংঘর্ষে নিহতদের দাফন সম্পন্ন, মামলা হয়নি

খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় নিজের বাগানের গাছ কাটাকে কেন্দ্র করে বিজিবি সদস্য ও গ্রামবাসীর সংঘর্ষে বিজিবির গুলিতে একই পরিবারে নিহত তিনজনসহ চারজনের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে বুধবার সকালে স্বজনদের কাছে লাশ হস্তান্তর করেন মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ শামছুদ্দিন ভূইয়া।

পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর ও দাফনের সময় মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (মাটিরাঙ্গা সার্কেল) মো: খোরশেদ আলম, মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো: রফিকুল ইসলাম, মাটিরাঙ্গা পৌরসভার মেয়র মো: শামছুল হক মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম হুমায়ুন মোরশেদ খান, সাধারণ সম্পাদক সুভাস চাকমা, মাটিরাঙ্গা সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিরনজয় ত্রিপুরা, মাটিরাঙ্গা পৌরসভার প্যানেল মেয়র মো: আলাউদ্দিন লিটন ও মাটিরাঙ্গা পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো: এমরান হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

প্রয়োজনীয় আনুষ্ঠানিকতা শেষে বেলা পোনে ১২টার দিকে আলুটিলা বটতলী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে প্রথম জানাজার নামাজ শেষ করে দ্বিতীয় জানাজা ১০নং ইসলামপুর জামে মসজিদ মাঠে জানাজার নামাজ সম্পন্ন করে। তারপর বটতলী কবরস্থানে মো: মফিজ মিয়াকে এবং ইসলামপুর কবরস্থানে সাহাব মিয়া (মুছা) ও তার দুই ছেলে আকবর আলী ও আহাম্মদ আলীকে দাফনের কাজ সম্পন্ন করেছে।

এদিকে মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ শামছুদ্দিন ভূইয়া জানিয়েছেন, ঘটনার একদিন পরও কেউ মামলা করতে আসেননি। মামলার পর প্রয়োজনীয় তদন্ত শেষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। এছাড়া এলাকার পরিবেশ স্বাভাবিক ও শান্ত রয়েছে বলে জানান তিনি। তবে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে এলাকায় ও নিহত সাহাব মিয়া (মুছা) এর বাড়িতে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

এর আগে ময়নাতদন্ত শেষে মঙ্গলবার রাতেই বরগুনার বেতাগী উপজেলার দক্ষিণ বাসন্ডা গ্রামের বাড়িতে পাঠানো হয় নিহত বিজিবি সদস্য মো: শাওন খানের মরদেহ।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার নিজের বাগানের গাছ কাটাকে কেন্দ্র করে মাটিরাঙ্গার গাজিনগরে বিজিবি ও গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে ঘটনা ঘটে। এসময় গুলিতে ঘটনাস্থলেই মারা যান সাহাব মিয়া ও তার ছেলে মো: আকবর আলী। এসময় গুলিবিদ্ধ অবস্থায় বিজিবি সদস্য শাওন, স্থানীয় আহাম্মদ আলী, মো: মফিজ মিয়া এবং মো: হানিফ মিয়াকে মাটিরাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানেই মারা যান বিজিবি সদস্য শাওন ও আহাম্মদ আলী। এদিকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যান মো: মফিজ মিয়া।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বিপাকে পড়া মানুষের টিসিবি পণ্য সংগ্রহে ভিড়

পার্বত্য জেলা রাঙামাটিতে নভেল করোনাভাইরাসের (কভিড-১৯) প্রভাবে বিপাকে পড়া মানুষের মাঝে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের …

Leave a Reply