খাগড়াছড়ি

মাটিরাঙ্গার দুর্গম জনপদে পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের খাদ্য সহায়তা

সারাদেশে ছড়িয়ে পড়েছে মহামারী করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯)। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে কর্মহীন হয়ে পড়েছে পাহাড়ের প্রান্তিক জনগোষ্ঠির হত-দরিদ্র ও শ্রমজীবি লোকজন। কর্মহীন হয়ে পড়া লোকজন পড়েছে চরম খাদ্য সঙ্কটে। আর এ পরিস্থিতিতে সরকারী সহায়তার পাশাপাশি মানিবক সহায়তার অংশ হিসেবে পাহাড়ের গৃহবন্ধী হতদরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ।

মহামরী করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে গৃহবন্ধী শ্রমজীবি, দু:স্থ ও হত-দরিদ্র মানুষের মাঝে খাদ্য সহায়তা বিতরণের অংশ হিসেবে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের উপদেষ্ঠা মো. সোলায়মান আলম শেঠ এর অর্থায়নে এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের ব্যবস্থাপনায় খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা পৌরসভা ও সাতটি ইউনিয়নের বিভিন্ন দুর্গম জনপদে দুই হাজার পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ।

মঙ্গলবার (১৯ মে) বেলা ১২টার দিকে মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের সামনে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ চেয়ারম্যান মো. আলকাছ আল মামুন ভূঁইয়া ও মহাসচিব আলমগীর কবির। এসময় জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ইঞ্জিনিয়ার খোরশেদ আলম, খাগড়াছড়ি জেলা জাতীয় পার্টির আহবায়ক অমৃত লাল ত্রিপুরা, পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মো. রেজাউল করিম, সিনিয়র যুগ্ম-সম্পাদক ও খাগড়াছড়ি পৌরসভার কাউন্সিলর ইঞ্জি. মো. আব্দুল মজিদ, এস এম মাসুম রানা, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মাইন উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক ও মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. আনিছুজ্জামান ডালিম ও প্রচার সম্পাদক মো. আফছার রনি ছাড়াও জাতীয় পার্টি ও পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এসময় পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ চেয়ারম্যান মো. আলকাছ আল মামুন ভূঁইয়া বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ দীর্ঘদিন ধরে পাহাড়ের অধিকার বঞ্চিত মানুষের অধিকার আদায়ে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে পাহড়ের কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের পাশে দাড়িয়েছে পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ। এ পরিস্থিতির উত্তোরণ না হওয়া পর্যন্ত কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের পাশে থাকার ঘোষনা দিয়ে তিনি তাদর এ কর্মসুচী বাস্তবায়নে মানবিক সহায়তা প্রদান করায় জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের উপদেষ্ঠা মো. সোলায়মান আলম শেঠ‘র প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

মানিবক সহায়তার অংশ হিসেবে পাহাড়ের গৃহবন্ধী হতদরিদ্র মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরনের অংশ হিসেবে তৃতীয় ধাপে খাগড়াছড়ির বিভিন্ন উপজেলায় ছয় হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হবে বলে জানিয়েছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মাইন উদ্দিন।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

20 + 15 =

Back to top button