ব্রেকিংরাঙামাটিলিড

মগদেশ্বরী সেবা খোলায় প্রতিমা ভাংচুরের ঘটনায় গ্রেফতার ২

রাঙামাটি শহরের ‘সিম্বল অব রাঙামাটি’খ্যাত ফিশারি সংযোগ সড়কের পাশে অবস্থিত বৃক্ষদেবতা শ্রীশ্রী মগদেশ্বরী সেবাখোলা মন্দিরের প্রতিমা ও ঘট ভাঙচুর এবং দানবাক্স লুটের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ২ জনকে আটক করেছে পুলিশ।  গত ১৩ মে এই ঘটনার পর ১৬ মে রাতে তাদের আটক করা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন কোতয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ(তদন্ত) খান নুরুল ইসলাম। আটকের পর তাদের জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে এবং রিমান্ডের জন্য আবেদন করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

করোনা পরিস্থিতির কারণে প্রক্রিয়াগত বিষয়ে একটু দেরি হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন এই পুলিশ কর্মকর্তা

গ্রেফতারকৃতরা হলো- মো: আলমগীর  হোসেন এবং মোঃ পারভেজ মোশাররফ। দুজনের আনুমানিক বয়স ২০/২১।

অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) খান নুরুল ইসলাম আরো জানিয়েছেন, আটককৃতরা ওই এলাকার চিহ্নিত মাদকসেবি এবং সামাজিক অপকর্মের সাথে জড়িত। এর আগেও এদের বিরুদ্ধে বাস টার্মিনাল এলাকায় মসজিদের দানবাক্স ভেঙ্গে লুট করার অভিযোগ আছে। এদের সন্দেহভাজন হিসেবে গ্রেফতার করেছি আমরা। এই দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করলেই প্রকৃত তথ্য বের হয়ে আসবে বলে মনে করছি আমরা।’

‘এই দুইজনের সাথে আরো ২/৩ জন মিলে একটা গ্রুপ আছে,যারা ফিসারী সংযোগ সড়ক,বাস টার্মিনাল ও শান্তিনগর এলাকায় নানান অসামাজিক কার্যকলাপ করে আসছে’ বলেও জানান তিনি। এই পুরো গ্রুপটাকেই ধরার চেষ্টা করছে পুলিশ, এ তথ্যও জানিয়েছেন এই পুলিশ কর্মকর্তা।

প্রসঙ্গত, গত ১৩ মে ‘বৃক্ষদেবতা শ্রী শ্রী মগদেশ্বরী সেবাখোলা মন্দির’ পরিচালনা কমিটির সভাপতি বাবুল মজুমদার জানিয়েছিলেন-সকালে ফিসারি সংযোগ সড়কে হাঁটতে যাওয়া পথচারিরা শ্রী শ্রী মগদেশ্বরী সেবাখোলা  মন্দিরের প্রতিমা বাইরে পড়ে থাকতে দেখে  আমাদের জানালে আমরা তাৎক্ষণিকভাবে সেখানে ছুটে যাই। গিয়ে দেখি যে প্রতীমা কয়েক টুকরো হয়ে আছে, পুজোর ঘটগুলো ভাঙা ও এলোমেলো পড়ে আছে এবং মন্দিরের দানবাক্স ভাঙা। এসময় মন্দির চত্বরে রাঙামাটি শহরের একটি হোটেলের খাবারের প্যাকেট এবং একটি পানির বোতল পড়ে থাকতে দেখা যায়। আমরা সাথে সাথে বিষয়টি কোতয়ালি থানা পুলিশকে জানালে,পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে।’

পরে এই ঘটনায় কোতয়ালী থানায় একটি সাধারন ডায়রি করেছিলেন বাবুল মজুমদার।

MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

এই সংবাদটি দেখুন
Close
Back to top button
Close