নীড় পাতা / পাহাড়ের সংবাদ / বান্দরবান / বীরের বাহাদুরিই দেখলো পাহাড়

বীরের বাহাদুরিই দেখলো পাহাড়

সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ে পূর্ণ মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পেলেন বান্দরবান থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য এবং সর্বশেষ মন্ত্রীসভায় প্রতিমন্ত্রী হিসেবে একই মন্ত্রনালয়ের দায়িত্ব পালন করা বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি। ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে টানা ছয়বার নির্বাচিত এই সংসদ সদস্যকে পূর্ণমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব প্রদানের মধ্য দিয়ে তার প্রতি নিজের আস্থা আর বিশ^াসেরই যেনো প্রতিফলন ঘটালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। খেলার মাঠের সফল ক্রিড়াবিদ বীর বাহাদুর রাজনীতির মাঠেও বয়সে-অভিজ্ঞতায় তারচে সিনিয়র ও ঝানু প্রতিবেশী জেলার দুই রাজনীতিবিদকে হারিয়ে দিয়ে প্রমাণ করলে বীরের বাহাদুরিই অব্যাহত থাকবে আরো অন্তত: পাঁচটি বছর।

রবিবার বিকালে মন্ত্রী পরিষদ সচিব মো. শফিউল আলম এক সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রীসভার তালিকা ঘোষণা করেন। অবশ্য এর আগেই গণমাধ্যমের বরাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেই প্রচার হয়ে পড়ে কারা কারা দায়িত্ব পাচ্ছেন নতুন মন্ত্রীসভায়। দুপুর নাগাদ বীর বাহাদুরের ব্যক্তিগত সহকারি সাদেক হোসেন চৌধুরী ফেসবুকে দেয়া এক স্ট্যাটাসে বীর বাহাদুরের মন্ত্রী হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

ছাত্রলীগ,যুবলীগ হয়ে আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে আসা বীর বাহাদুর ১৯৯২ সালে বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও পরে জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। ১৯৯১ সাল থেকে ২০১৮ সাল অবধি অনুষ্ঠিত প্রতিটি জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি বান্দরবান থেকে আওয়ামীলীগের প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীকে বিজয়ী হয়ে আসছেন। মূলত: ধারাবাহিক বিজয় এবং নিজের জেলায় ঝামেলা ও প্রতিরোধহীন রাজনীতির কারণেই দলের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে মূল্যায়িত হলেন বীর বাহাদুর।

বীর বাহাদুর ঊশৈসিং ২০০২ সালে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এবং জাতীয় সংসদের বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সংসদীয় দলের হুইপ হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছিলেন। ১৯৯৮ সালে উপমন্ত্রীর পদমর্যাদায় প্রথমবারের মত এবং ২০০৮ সালে প্রতিমন্ত্রীর পদমর্যাদায় দ্বিতীয় বারের মত পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড-এর চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

তবে এবার পার্বত্য বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের পূর্ণমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব প্রাপ্তিই তার জীবনের সর্বোচ্চ অর্জন। তার চেয়ে সিনিয়র এবং হেভিওয়েট দুই সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার ও কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরাকে পেছনে ফেলে দলীয় প্রধান শেখ হাসিনার আস্থা অর্জন করে পার্বত্য মন্ত্রনালয়ের দায়িত্ব পেয়ে সবাইকে চমকেই দিয়েছেন বীর বাহাদুর।

পাহাড়টোয়েন্টিফোর ডট কমকে দেয়া এক প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেছেন, আগে যে দায়িত্ব ছিলো এবার তার চেয়ে দায়িত্ব আরো দ্বিগুন হলো। আরো দায়িত্বশীল হতে হবে। এলাকার প্রতি যে দায়িত্ব আছে তা পালন করতে হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ভিশন-২০৪১ বাস্তবায়নের জন্য তার পাশে থেকে কাজ করতে হবে। দেশের উন্নয়ন,এলাকার উন্নয়নে কাজ করব। সম্প্রীতি বজায় রেখে পার্বত্যাঞ্চলে শান্তি প্রতিষ্ঠায় আমার সর্বোচ্চ শক্তি দিয়ে আমার বিদ্যাবুদ্ধি যা আছে তা প্রয়োগ করব। এলাকার উন্নয়নে দল মত নির্বিশেষে পাহাড়ী বাঙালি সবাইকে সাথে নিয়ে একসাথে কাজ করে যাব আমি।’

আরো দেখুন

আত্মীয়-স্বজনের ঘরেই ঠাঁই পেল অগ্নিদুর্গতরা

মাসুম, বয়স ৮ বছর। সকাল বেলার নাস্তা সেরে ঘর থেকে বের হয়েছিলো বন্ধুদের সাথে খেলতে। …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

10 − 7 =