করোনাভাইরাস আপডেটব্রেকিংরাঙামাটিলিড

বিপাকে পড়া ব্যাচেলর শিক্ষার্থীদের পাশেও ‘স্বপ্নবুনন’

নভেল করোনাভাইরাসের (কভিড-১৯) প্রভাবে দেশজুড়ে সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটিতে বিপাকে পড়েছেন ব্যাচেলর শিক্ষার্থীরা। অনেকেই যানবাহন চলাচল বন্ধসহ নানা কারণে পৌঁছাতে পারেননি গৃহে। এমতাস্থায় পার্বত্য জেলা রাঙামাটিতে করোনার প্রভাবে বিপাকে পড়া ব্যাচেলর শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়িয়েছে একটি সামাজিক।

দেশের এই ক্রান্তিকালে ‘স্বপ্নবুনন’ নামের এই সামাজিক সংগঠনটি শুক্রবার থেকে নিজেদের আরেক দৃষ্টান্ত তুলে ধরে। এর আগেও সংগঠনটি জেলা শহর ও বিভিন্ন উপজেলায় মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণসহ অসহায়দের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছেন। এছাড়াও হাটবাজারে ‘সামাজিক দূরত্ব’ নিশ্চিতে ‘বৃত্ত অঙ্কন’ করে ব্যাপক আলোচনায় এসেছে সংগঠনটি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে অনেকেই তাদের এমন দৃষ্টান্তমূলক কাজের প্রশংসা করেছেন।

শুক্রবার সকাল থেকে সংগঠনের এই নতুন কার্যক্রমে রাতঅব্দি ১৫ জন ব্যাচেলর শিক্ষার্থীকে ত্রাণ সহায়তা দেওয়া হয়েছে। ত্রাণ সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে, চাল, আলু, তেল, পেঁয়াজ, সাবান ও কাঁচাবাজারসহ অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য। ‘সামাজিক দূরত্ব’ বজায় রাখতে সংগঠনটির চারজন সদস্য বিশিষ্ট একটি টিম প্রতিনিয়ত মানবিকতার টানে পাশে দাঁড়াচ্ছেন অসহায়, নিম্নবিত্ত ও বিপাকে পড়া মানুষের।

এ প্রসঙ্গে ‘স্বপ্নবুনন’র প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান নুর তালুকদার মুন্না জানিয়েছেন, ‘রাঙামাটির বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত অনেক শিক্ষার্থী আছেন যারা করোনা পরিস্থিতিতে বাড়িতে যেতে পারেনি। এর মধ্যে অনেকেই পারিবারিক অবস্থা ও নানান কারণে অর্থ সংকটে রয়েছেন; তারা এমনতাবস্থায় বেশ বিপাকে পড়েছেন। আমরা স্বপ্নবুননের পক্ষ থেকে এসব বিপাকে পড়া শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়িয়েছে। শুক্রবার সকাল থেকে আমরা এ পর্যন্ত কার্যক্রম শুরু করেছি। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত মোট ১৫ জন শিক্ষার্থীকে সহায়তা করেছি।’

মুন্না আরও জানিয়েছেন, ‘অনেক শিক্ষার্থীই সংকটে আছেন, কিন্তু মুখফুটে কাউকে কিছু বলতেও পারছেন না। তারাও আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন। আমরা বিষয়টির পুরোপুরি গোপনীয়তা রক্ষা করেই এসব বিপাকে পড়া শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়াচ্ছি মানবিকতার টানেই।’

MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

এই সংবাদটি দেখুন
Close
Back to top button
Close