নীড় পাতা / ব্রেকিং / বিজু উৎসবে মেতেছে পাহাড়ী গ্রাম
parbatyachattagram

বিজু উৎসবে মেতেছে পাহাড়ী গ্রাম

নতুন বছরকে বরণ আর পুরানো বছরকে বিদায় জানাতে পাবত্য চট্টগ্রামে বসবাসরত ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠির মানুষেরা পালন করে সামাজিক উৎসব বিজু, বিহু, সাংগ্রাই, বৈসুক। বিজু মানে আনন্দ ,নতুনভাবে বেঁচে থাকার স্বপ্ন, সামনে এগিয়ে যাবার প্রেরণা। বৃহত্তর এই সামাজিক উৎসবে মূখর পাহাড়ের প্রতিটি গ্রাম। রাঙামাটির লংগদুতে গত ৬ এপ্রিল থেকে শুরু হয়েছে বিজু উৎসবের নানা আয়োজন। উপজেলার সোনাই কারবারি পাড়ায় নিজস্ব সংস্কৃতির নানা আয়োজনের পাশাপাশি চলছে গ্রামীন খেলাধুলার নানা প্রতিযোগীতা।
সোনাই বিজু উদযাপন পরিষদের আয়োজনে দুই সপ্তাহব্যাপী ফুটবল টুর্ণামেন্ট, মহিলাদের হ্যান্ডবল, বালিশ বদল, রশি টানা, বয়স্কদের ঘিলা খেলা,বাশ খরম, সিংঙ্গা বাজানো, ধুধক বাজানোসহ নানা প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এ সকল অনুষ্ঠান চলবে আগামী ১৯ এপ্রিল পর্যন্ত। এদিন সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত হবে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও র‌্যাফেল ড্র।
শনিবার সকালে হ্রদের জলে ফুল ভাঁসানোর মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে বিজুর আনুষ্ঠানিকতা। পাহাড়ের অন্য এলাকা গুলোতে শুক্রবারই ফুলবিজু করা হলেও এখানে পঞ্জিকা অনুযায়ী শনিবারেই ফুলবিজু করেছেন তারা এমনটাই জানালেন বিজু উদযাপন পরিষদের আহ্বায়ক সুখময় চাকমা।
ফুলবিজুর মাধ্যমে পুরাতনকে বিদায় নতুনকে বরণের প্রার্থনা করা হয়। মুলবিজু হলো পরিবার পরিজন,আত্মীয়স্বজন, প্রতিবেশি সকল অতিথিকে আপ্যায়নের আয়োজন। এরপরদিন বিহারে বিহারে চলে ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান। জগতের সকল প্রাণির মঙ্গল কামনায় অনুষ্ঠিত হয় নানা পূজো ও দানানুষ্ঠান।
সোনাই বিজু উদযাপন পরিষদের প্রধান পৃষ্টপোষক সমাজসেবক নিরুপন চাকমা জানান, ‘নিজস্ব সংস্কৃতির চর্চা ও ঐতিহ্যকে ধারণ করার মাধ্যমে বিজু উৎসবের এমন আয়োজন আমরা করেছি। আমরা চাই বিজু উৎসবের আনন্দ সবার মাঝে ছড়িয়ে যাক, দূর হোক সকল হানাহানি সংঘাত। ’

Micro Web Technology

আরো দেখুন

রামগড় চা বাগানের ভোগ দখলীয় জমি কেড়ে নেওয়ায় শ্রমিক অসন্তোষ

বংশ পরস্পরায় শ্রমিকদের ভোগদখলীয় জমি কেড়ে নেওয়ার হুমকির মুখে রামগড় চা বাগানের পঞ্চায়েত নেতৃবৃন্দ ও …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

14 − four =