পাহাড়ের রাজনীতিব্রেকিংলিড

‘বিচারহীনতার কারণে পাহাড়ে সন্ত্রাসীদের দৌরাত্ম্য দিনদিন বাড়ছে’

‘বিচারহীনতার কারণে পাহাড়ে দুর্বৃত্ত ও খুনী-সন্ত্রাসীদের দৌরাত্ম্য দিনদিন বাড়ছে’ এমন মন্তব্য করে ১২ সংগঠনের নেতারা বলেছেন, ‘গত শনিবার (১৮আগস্ট) সকালে খাগড়াছড়ি স্বনির্ভর বাজারে সশস্ত্র দুর্বৃত্তের গুলিতে ৭জন নিহতের ঘটনা কোনো বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। ধারাবাহিক ভাবে পাহাড়ে সন্ত্রাসী হামলা ও হত্যার ঘটনা ঘটছে। কিন্তু কোনো হত্যাকান্ডেরই বিচার হচ্ছে না, রক্তের দাগ শুকাতে না শুকাতেই পার্বত্য চট্টগ্রাম বারবার রক্তে রঞ্জিত হচ্ছে।’

নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, ‘আজকে দেশের নিরাপত্তা ব্যবস্থা চরম ভাবে ভেঙে পড়েছে। সরকার সারাদেশের মতো পাহাড়ে চলমান হত্যাকান্ড বন্ধ না করে প্রকারান্তরে খুনী-সন্ত্রাসীদের মদদ দিচ্ছে। পাহাড়ে এসমস্ত সন্ত্রাসী কর্মকান্ড ও হত্যার দায় সরকারকেই নিতে হবে।’

বুধবার বিকালে ইউপিডিএফ সমর্থিত পিসিপি’র কেন্দ্রীয় সভাপতি বিনয়ন চাকমা প্রেরিত গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতি ১২ ছাত্র-যুব ও নারী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন। এসময় ইউপিডিএফ সমর্থিত পিসিপি’র খাগড়াছড়ি জেলার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তপন চাকমা, সহ-সাধারণ সম্পাদক এল্টন চাকমা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় সদস্য পলাশ চাকমাসহ৭ জনকে নিহতের ঘটনায় আসামীদের গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছে তারা।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ গত ১৮ মার্চ রাঙামাটির কুতুকছড়ি থেকে আলোচিত হিল উইমেন্স ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মন্টি চাকমা ও দয়াসোনা চাকমা অপহরণের ঘটনার উল্লেখ করে বলেন, ‘পাহাড়ে অপহরণকারী ও খুনী-সন্ত্রাসীরা নির্বিঘেœ অপরাধ সংঘটিত করে চলেছে। মন্টি-দয়া সোনার অপহরণকারীদের এখনও গ্রেফতার করা হয়নি।’

যুক্ত বিবৃতিতে ১২ সংগঠনের নেতারা হলেন- হিল উইমেন্স ফেডারেশনের সভাপতি নিরুপা চাকমা, পিসিপির সভাপতি বিনয়ন চাকমা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের সভাপতি অংগ্য মারমা, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি পারভেজ লেলিন, বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রীর সভাপতি ইকবাল কবির, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি গোলাম মোস্তফা, ছাত্র গণমঞ্চের সভাপতি সাঈদ বিলাস, ছাত্র ঐক্য ফোরামের যুগ্ম আহবায়ক সরকার আল ইমরান, সিপিবি নারী সেলের আহবায়ক লক্ষী চক্রবর্তী, নারী সংহতির সাধারণ সম্পাদক অপরাজিতা চন্দ, বিপ্লবী নারী মুক্তির আহবায়ক নাসিমা নাজনীন ও বিপ্লবী নারী ফোরামের আমেনা আক্তার।

MicroWeb Technology Ltd

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button