খাগড়াছড়িলিড

বিএনপি শুধু ষড়যন্ত্র ও বিভ্রান্তি সৃষ্টি করতে জানে-মাহবুবুল আলম হানিফ

খাগড়াছড়িতে আওয়ামীলীগের তৃণমূল সভা

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি ॥
বিএনপি-জামাত জোট আওয়ামীলীগের ২৬হাজার নেতাকর্মী হত্যাকারী, অজস্র সাধারণ মানুষকে আগুনে পুড়ে মেরেছে। যারা দেশটাকে লুটেপুটে খেয়েছে এমন দলের মুখে গণতন্ত্রের কথা মানায় না।

রবিবার দুপুরে খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজ মাঠে জেলা আওয়ামীলীগের তুণমূল সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ এমপি।

তিনি বলেন, দেশের এত এত উন্নয়ন এসব বিএনপির চোখে পড়ে না। নিজেদের টাকায় পদ্মা সেতু হচ্ছে, কর্ণফুলি টানেল হচ্ছে, বিদ্যুতের ঘাটতি নাই, খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। কিন্তু তারা এসব দেখেও দেখে না। তাঁরা শুধু ষড়যন্ত্র ও বিভ্রান্তি সৃষ্টি করতে জানে। দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে পটু।

দেশের উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ এখন পৃথিবীর কাছে রোল মডেল। ৭১ এ জাতির পিতার নির্দেশে আমরা দেশ স্বাধীন করেছিলাম। এখন জাতির পিতার কন্যার নির্দেশে দেশকে উন্নয়নের রোল মডেল তৈরিতে কাজ করে যাচ্ছি।

এতে আরো উপস্থিত ছিলেন আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা এমপি, উপ প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, রাঙামাটির সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার এমপিসহ কেন্দ্রীয়, বিভাগীয় ও খাগড়াছড়ি জেলার নেতৃবৃন্দ।

সভায় আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় এই নেতা বলেন, বিএনপি ক্ষমতাকালীন আমাদের ভিক্ষুকের জাতি বানিয়েছিল। আওয়ামীলীগ ক্ষমতা নেয়ার আগে দেশে সাড়ে ৩হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ ছিল। আর এখন ২৪ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হয়। ২০৩০ সালে যা ৩০ হাজার মেগাওয়াট ছাড়িয়ে যাবে। বছরের শুরুতে শিক্ষার্থীদের হাতে ৩৬ কোটি বই পৌঁছে দেয়া হচ্ছে। যেখানে দেশের রেমিট্যান্স ৮বিলিয়ন ডলার ছিল তা বেড়ে এখন ৩২ বিলিয়ন ডলারে দাঁড়িয়েছে। দেশের রপ্তানি যেখানে ৮বিলিয়ন ছিল সেখানে রপ্তানি এখন ৫০বিলিয়ন ডলার চাড়িয়ে গেছে। আওয়ামীলীগ সরকার আসার আগে মাথাপিছু আয় ছিল ৬০০ ডলার যা এখন মাথাপিছু ২৬শ ডলার। ২০৩১ সালের মধ্যে আমরা মধ্যম এবং ৪১ সালে আমরা উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হব।

পার্বত্য চট্টগ্রামের আমুল পরিবর্তন এসেছে উল্লেখ করে মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, পাহাড়ের শান্তির পরিবেশ তৈরি করতে হবে। অস্ত্রের ঝনঝনানি বন্ধ করতে। শান্তি আনতে হলে অস্ত্র জমা দিতে হবে। অস্ত্র হাতে রেখে শান্তি চাইলে তা হবে না। পাহাড়ে যারা ভুল পথে হাঁটছেন তাঁরা অস্ত্র জমা দিয়ে দেশের সার্বভৌমত্ব, শান্তি-শৃঙ্খলা উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় সামিল হওয়ার আহ্বান জানান।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × three =

Back to top button