বান্দরবানব্রেকিংলিড

‘বিএনপি চোরের দল, এখন বর্ষাকালের ব্যাঙের মতো হাউকাউ করছে’

পাহাড়ি জনপদ বান্দরবানে নৌকার পালে নতুন হাওয়া লেগেছে। সাংগঠনিক সফরে আসা আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থিতি পরিপূর্ণতা পেয়েছে ঐতিহাসিক রাজারমাঠে জনসভাস্থলে নৌকার আদলে তৈরি নৌকামঞ্চ। জেলার সাতটি উপজেলা, দুটি পৌরসভা, ৩৩টি ইউনিয়ন এবং ৯৫টি মৌজার আওয়ামীলীগসহ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের সরব উপস্থিতিতে লোকে লোকারণ্য হয়ে উঠেছে জনসভাস্থলটি।

শনিবারের জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও গৃহায়ন গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম, কেন্দ্রীয় উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, উপ-দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়া প্রমুখ।

জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ক্যশৈহ্লা’র সভাপতিত্বে জনসভায় অন্যদের মধ্যে জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি শফিকুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মো: ইসলাম বেবী, যুগ্ম সম্পাদক লক্ষি পদ দাশ, সাংগঠনিক সম্পাদক মোজাম্মেল হক বাহাদুর, মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি টিংটিং মারমা, লামা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোহাম্মদ ইসমাঈল, রোয়াংছড়ি আওয়ামীলীগের সভাপতি চহ্লামং মারমাসহ সংগঠনের নেতারা।

জনসভায় বিশেষ অতিথি ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার ছোয়ায় বদলে গেছে বাংলাদেশ। উন্নয়নের মহাসড়কে হাঁটছে এদেশ। মানুষের আয় বেড়েছে, জনগণের ক্রয় ক্ষমতাও বৃদ্ধি পেয়েছে বহুগুণে। বিশবছর আগে বিদেশ যাওয়া ছেলেটি দেশে ফিরে ঢাকা-চট্টগ্রামে হঠাৎ উড়ন্ত সেতু দেখে চমকে যান। এটিই হচ্ছে বদলে যাওয়া বাংলাদেশ। বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, আওয়ামীলীগ খালি কলসি নয়, আওয়ামীলীগ এদেশের উন্নয়নের প্রতীক। ব্যাঙ বর্ষাকালে ডাকা ডাকি করে। বিএনপিও বর্ষাকালের ব্যাঙের মত হাও, মাও করে ডাকছেন। চিৎকার করে।

পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি বলেন, পার্বত্য শান্তি চুক্তির আগে পূর্ণিমার চাঁদের আলো দেখতে পাহাড়ি-বাঙালিরা ঘর থেকে বের হওয়ার সাহস পায়নি। কিন্তু বদলে গেছে পার্বত্যাঞ্চলের চিত্র। চুক্তির ফলে পাহাড়ে উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে। পাহাড়ের মানুষ অর্থনৈতিক এবং আর্থ-সামাজিকভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। পাহাড়ের মানুষের কান্না শুধুমাত্র শেখ হাসিনা শুনেছেন। অতীতের কোনো সরকার পার্বত্যাঞ্চলের সমস্যা সমাধানে এগিয়ে আসেনি। তিনি আরো বলেন, ঘরে ইঁদুর থাকতে পারে। কিন্তু আওয়ামীলীগে বেইমান-মীর জাফরের কোনো স্থান হবে না।

প্রধান অতিথি আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের রক্তক্ষয়ী সংঘাত বন্ধ করে শান্তি চুক্তি সম্পাদনের মাধ্যমে পাহাড়ে শান্তি ফিরিয়েছে আওয়ামীলীগ। পাহাড়ে এখন উন্নয়নের জোয়ার বইছে। কিন্তু বিএনপি চুক্তি নিয়ে মিথ্যাচার করেছে। তিনি বলেন, বীর বাহাদুর উশৈসিং পার্বত্যাঞ্চলে আওয়ামীলীগ তথা শেখ হাসিনার বিশ্বস্ত একজন প্রতিনিধি। তার হাত ধরেই উন্নয়নের ছোঁয়ায় বদলে গেছে বান্দরবান জেলা। আগামী নির্বাচনেও বীর বাহাদুর উশৈসিংকে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে ষষ্ঠবারের নির্বাচিত করবেন। বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, বিএনপি দেশের কোনো উন্নয়ন করেনি। লুটপাট আর দেশের সম্পদ চুরি করেছে। বিএনপি চোরের দল, চোরের ভোট দেয়ার কোনো অধিকার নেই।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button