ব্রেকিংরাঙামাটি

বাল্যবিবাহ, শিশু নির্যাতন ও ধর্ষণ বেড়েছে

সংবাদ সম্মেলনে এনসিটিএফ’র দাবি

প্রান্ত রনি
করোনাকালীন সময়ে আগের তুলনায় দেশে ১৩ শতাংশ বেশি শিশু বাল্যবিবাহের শিকার হয়েছে। বিশেষত দেশের উত্তরাঞ্চলে বাল্যবিবাহের সংখ্যা আগের তুলনায় বেড়েছে বলে দাবি করেছে শিশু বিষয়ক সংগঠন ন্যাশনাল চিলড্রেন’স টাস্কফোর্স (এনসিটিএফ)।

মঙ্গলবার সকালে সংগঠনটির রাঙামাটি জেলা কমিটি এক সংবাদ সম্মেলনে এ চিত্র তুলে ধরেছে। সকাল ১১টায় জেলা শিশু একাডেমি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন এনসিটিএফ রাঙামাটির সাধারণ সম্পাদক প্রিয়ন্তী ত্রিপুরা।

সংবাদ সম্মেলন প্রিয়ন্তী ত্রিপুরা জানান, ‘দেশে দিন-দিন বাল্যবিবাহ, শিশুর প্রতি সহিংসতা, নির্যাতন ও ধর্ষণ বাড়ছে। এনসিটিএফ’র মনিটরিং রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০২০ সালের জুন থেকে চলতি বছরের জুলাই পর্যন্ত এই ১৪ মাসে সারাদেশে ৫৮৪ জন শিশু নানাভাবে নির্যাতনে শিকার হয়েছে। এর মধ্যে গত এক বছরে ২৩১ জন শিশু বাল্যবিবাহের শিকার হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘পত্র-পত্রিকা খুললেই আমরা শিশু নির্যাতন, শিশুর প্রতি সহিংসতা এবং বাল্যবিবাহের খবর প্রতিনিয়ত দেখতে পাচ্ছি। এছাড়া বর্তমানে শিশু ধর্ষণের ঘটনায়ও উদ্বেগজনকহারে বেড়ে চলছে। এটি অত্যন্ত উদ্বেগজনক ও মর্মাহত বিষয়। এসব বিষয় নিয়ে আমরা বেশ আতঙ্কিত হয়ে পড়ছি।’

প্রিয়ন্তী বলেন, ‘আমরা এনসিটিএফ সারাদেশের শিশুদের পক্ষ থেকে প্রচলিত বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন-২০১৭ এবং শিশু আইন-২০১৩ এর সঠিক ও কার্যকরী বাস্তবায়নের মাধ্যমে শিশু নির্যাতনকারী ও বাল্যবিবাহের সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। যাতে করে ভবিষ্যতে কেউ শিশুর প্রতি নিষ্ঠুর আচরণ করতে সাহস না পায়।’

এসময় সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন এনসিটিএফ’র রাঙামাটির সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক সালেহ আহমেদ, জয়ন্তী ত্রিপুরা, শিশু সাংবাদিক জিসান হোসেন ও শিশু গবেষক সানজিদা আক্তার প্রমুখ।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Back to top button