নীড় পাতা / পাহাড়ের সংবাদ / বান্দরবান / ‘বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু
parbatyachattagram

‘বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু

দেশের শততম বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে বান্দরবানবাসির স্বপ্নের ‘বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়’ এর একাডেমিক কার্যক্রম শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে জাতীয় পতাকা উত্তোলন এবং ফলক উন্মোচনের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের আনুষ্ঠানিক উদ্ধোধন করেন প্রধান অতিথি পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক প্রফেসর ড. ফরিদ উদ্দিন আহমেদ, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্ণা, প্রফেসর প্রজেন্দ্র বিকাশ চাকমা, জেলা প্রশাসক মো: দাউদুল ইসলাম, বান্দরবান ৬৯ সেনা রিজিয়নের ভারপ্রাপ্ত কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল আমীনসহ সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন কর্তাব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন। ফলক উন্মোচনের পর বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্বোধন উপলক্ষে শহরে একটি শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভযাত্রাটি শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সমন্বয়ক নুরুল আবছার জানান, ‘শুরুতে ইংরেজি অনার্স, এমবিএ এবং বিবিএ ৩টি বিষয়ে শিক্ষা কার্যক্রম চালু হয়েছে। পরবর্তীতে জার্নালিজম এবং কম্পিউটার সাইনস্সহ আরও দুটি বিষয় চালু করা হবে। বিষয় দুটি এখনো প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। ইতিমধ্যে তিনটি সাবজেক্টে ১’শ ছাত্রছাত্রী ভর্তি হয়েছে।’

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং বলেন, ‘পাহাড়ের মানুষের কাছে বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয় একটি স্বপ্নের নাম। এটি এ অঞ্চলের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর উচ্চ শিক্ষা লাভে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। উদ্যোগ গ্রহণের দু’বছরের মাথায় বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কার্যক্রম শুরু হলো। আমাদের লক্ষ্য এটিকে আবাসিক বিদ্যালয় হিসাবে রুপান্তরিত করা। এই যাত্রায় সকলের সহযোগীতা দরকার।’

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের প্রথমদিকে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের বর্তমান মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপির উদ্যোগে বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার পদক্ষেপ নেওয়া হয়। বেশ কয়েকটি অনানুষ্ঠানিক সভার পর কয়েকজন সমাজসেবক এগিয়ে এসে তাঁর পাশে দাঁড়ান। তাঁদের সমন্বয়ে প্রতিষ্ঠিত হয় ‘বান্দরবান শিক্ষা ও উন্নয়ন ফাউন্ডেশন’। এই উদ্যোগে সম্পৃক্ত হয়ে পাশে দাঁড়ান বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদও।

উভয় প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সম্পাদিত যৌথ চুক্তির মধ্য দিয়েই স্বপ্নের পাখা মেলে প্রতিষ্ঠিত বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়। সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী বান্দরবান শিক্ষা ও উন্নয়ন ফাউন্ডেশন বিনিয়োগের ৭৫ শতাংশ এবং বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ ২৫ শতাংশ বহন করবে। সে অনুযায়ী জমি ক্রয় এবং স্থায়ী ক্যাম্পাস নির্মাণের কাজও চলমান রয়েছে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

আটদিন পর রাঙামাটির সাথে খাগড়াছড়ি-বান্দরবানের সড়ক যোগাযোগ চালু

রাঙামাটির সাথে খাগড়াছড়ি-বান্দরবান আন্তঃজেলা আটদিন পর সরাসরি বাস যোগাযোগ শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে এই রুটগুরোতে …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

2 × 1 =