রাঙামাটি

বাঘাইছড়িতে জেলা প্রশাসকের খাদ্য সহায়তা ও ইফতার সামগ্রী বিতরণ

মোঃ মহিউদ্দিন, বাঘাইছড়ি
করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় দেশব্যাপী চলছে লকডাউন। টানা লকডাউনে সংসার চালাতে হিমশিম খাচ্ছেন শ্রমজীবী খেটে খাওয়া মানুষ। বাঘাইছড়ির কর্মহীন অসহায় অসচ্ছল দুস্থ শ্রমজীবী মানুষের মাঝে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর মানবিক উপহার সামগ্রী। বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে বাঘাইছড়ি উপজেলা প্রশাসন মাঠে কর্মহীন এসব মানুষের মাঝে ইফতার সামগ্রী ও খাদ্য সহায়তা বিতরণ কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন রাঙামাটি জেলা প্রশাসন মোঃ মিজানুর রহমান।

এসময় রাঙামাটি পুলিশ সুপার মীর মোদ্দাছ্ছের হোসেন, ডিজিএফআই কর্নেল এমরান ইবনে রউফ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোঃ মামুন, ২৭ বিজিবির জোন অধিনায়ক লেঃ কর্নেল আনোয়ার হোসেন ভুঁইয়া আর্টিলারি, ৫৪বিজিবির এসিস্টেন্ট ডাইরেক্টর মোজাম্মেল হক ভুঁইয়া। বাঘাইছড়ি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সুদর্শন চাকমা, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শরিফুল ইসলাম, বাঘাইছড়ি পৌরসভার মেয়র জাফর আলী খান, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল কাইয়ুম, বাঘাইছড়ি উপজেলার ইউপি চেয়ারম্যান, হেডম্যান ও কার্বারিসহ উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

জেলা প্রশাসন মোঃ মিজানুর রহমান বলেন, করোনায় সকলকে সচেতন হয়ে মাস্ক ব্যবহারসহ সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে হবে এবং মহামারী করোনা উত্তরণে রাঙামাটি পার্বত্য জেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে প্রাপ্ত এ ইফতার সামগ্রী ও খাদ্য সহায়তা বাঘাইছড়ি উপজেলার আটটি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় ১৫০ পরিবারের মধ্যে বিতরণ করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, দশটি উপজেলায় পর্যায়ক্রমে হতদরিদ্র মানুষের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তা প্রদান করা হয়েছে তারই ধারাবাহিকতায় আজ বাঘাইছড়িতে প্রধানমন্ত্রীর উপহার বিতরণ করা হলো।

উপহার সামগ্রীর মধ্যে ১০ কেজি চাল, ১ কেজি ডাল, ৩ কেজি আলু, ১ কেজি লবণ এবং ১ লিটার সয়াবিন তেল। কর্মহীন হয়ে পড়া এসব মানুষ প্রধানমন্ত্রীর উপহার সামগ্রী পেয়ে অত্যন্ত আনন্দিত এবং প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তারা।

ত্রাণ বিতরণ শেষে জেলা প্রশাসকের সফরসঙ্গীরা উপজেলা পরিষদের মিলনায়তনে পাহাড়ি বাঙালির মধ্যে চলমান ভুল বুঝাবুঝির নিরসনের জন্য আলোচনা সভায় যোগদান করেন। এসময় উভয় স¤প্রদায়ের কথা শুনেন এবং তা নিরসনের জন্য উভয় পক্ষকে সতর্ক করে বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ছড়ানো যাবে না। সম্প্রীতি বজায় রাখতে উভয় স¤প্রদায়ের প্রতি আহবান জানানো হয়।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

16 − fifteen =

Back to top button