নীড় পাতা / ব্রেকিং / ‘ বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের প্রতি আনুগত্য দেখিয়েই পার্বত্যচুক্তি স্বাক্ষর করেছিলাম’
parbatyachattagram

রাঙামাটিতে র‌্যালি শুরুর আলোচনা সভায় ঊষাতন

‘ বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের প্রতি আনুগত্য দেখিয়েই পার্বত্যচুক্তি স্বাক্ষর করেছিলাম’

‘আদিবাসী ভাষা চর্চা ও সংরক্ষণে এগিয়ে আসুন’ এ স্লোগানকে সামনে রেখে রাঙামাটিতে অনুষ্ঠিত হয়েছে আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস। দিবসটি উপলক্ষে শুক্রবার সকালে রাঙামাটি পৌরসভা প্রাঙ্গণে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় নৃত্য পরিবেশন করে চাকমা ,ত্রিপুরা ও মারমা জনগোষ্ঠিসহ পাহাড়ের বিভিন্ন জনগোষ্ঠির সমন্বয়ে গঠিত দলের শিল্পীরা।

নৃত্য পরিবেশন শেষে অনুষ্ঠিত সভায় বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরামের পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের আহ্বায়ক প্রকৃতি রঞ্জন চাকমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উদ্বোধক ছিলেন সাবেক সংসদ সদস্য ঊষাতন তালুকদার। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক কমিটির সভাপতি গৌতম দেওয়ান। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- রাঙামাটি আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট দীননাথ তঞ্চঙ্গ্যা। সিএইচটি হেডম্যান নেটওয়ার্কের সাধারণ সম্পাদক শান্তি বিজয় চাকমা, জেলা হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি শিব প্রসাদ মিশ্র, নারী নেত্রী নাই প্রু মারমা(মেরি)। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন আদিবাসী দিবস উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব ইন্টু মনি তালুকদার। সভাই সংহতি প্রকাশ করেন চাকমা সার্কেলের চীফের সহধর্মীনি ইয়েন ইয়েন।

ঊষাতন তালুকদার বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের প্রতি আনুগত্য দেখিয়ে পাহাড়ে শান্তি চুক্তি স্বাক্ষর করেছিলাম আমরা। গত ২১ বছরে আমরা স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের প্রতি বিরোধিতা করেনি। আমাদের চিন্তা-ভাবনার মধ্যেও এমন কিছুই ছিল না। তবু কেউ কেউ তিলকে তাল করার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেন ঊষাতন তালুকদার।

আলোচনা সভা শেষে আদিবাসী দিবসের বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়। শোভাযাত্রাটি শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে রাঙামাটি জেলা শিল্পকলা একাডেমী এলাকায় গিয়ে শেষ হয়।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

পাহাড়ে স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবি

পার্বত্য চট্টগ্রামে স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট মহাসচিব …

Leave a Reply