লাইফস্টাইল

বর্ণিল আয়োজনে ‘হেমন্তের আমন্ত্রণ’ কাপ্তাইয়ে

ঝুলন দত্ত, কাপ্তাই

” হৈমন্তিকা এসো এসো, এসো হিমেল – শীতল বন তলে”  কাজী নজরুল ইসলামের প্রকৃতি পর্যায়ের এই গানটি যখন বেতার ও টিভি শিল্পী রাজেস সাহা এবং পৃথ্বীরাজ সাহার  সুরেলা কণ্ঠে গীত হচ্ছে, তখন হাজার খানেক  দর্শক মন্ত্র মুগ্ধের মতো পিনপতন নীরবতায় উপভোগ করছে সেই গান।

মঙ্গলবার (১৫ নভেম্বর) বেলা আড়াই টা হতে সন্ধ্যা  সাড়ে ৭ টা  অবধি রাঙামাটির কাপ্তাই উপজেলা সদর বড়ইছড়ি কর্ণফুলি নুরুল হুদা কাদেরী উচ্চ বিদ্যালয়ের সবুজ চত্বরে অনুষ্ঠিত হলো “হেমন্তের আমন্ত্রণ ” শীর্ষক হেমন্ত উৎসব।

উপজেলা শিল্পকলা একাডেমি, কাপ্তাইয়ের আয়োজনে আনিকা, অদ্রিজা ও মেসিং এর প্রানবন্ত উপস্থাপনায় উৎসবে  ছিল হেমন্ত ঋতুকে নিয়ে রচিত গান, কবিতা, জারি গান, নৃত্যানুষ্ঠান এবং নানা রকম পিঠা পুলির আয়োজন।

একাডেমির সাধারণ সম্পাদক ঝুলন দত্ত, যুগ্ম সম্পাদক বিপুল বড়ুয়া, নৃত্য প্রশিক্ষক সংগীতা দত্ত এ্যানি ও সংগীত শিক্ষক জ্যাকলিন তনচংগ্যার পরিচালনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে একক, দ্বৈত ও  সমবেত সংগীত পরিবেশন ছাড়াও বিশিষ্ট বাংলা ঢোল বাদক রবিন দাশের একক ঢোল বাদন, এছাড়া মুল আকর্ষন সমবেত যন্ত্র সংগীত পরিবেশনা অনুষ্ঠানকে আরোও প্রানবন্ত করে।

উৎসব প্রাঙ্গনে ১৪ টি স্টলে বিক্রেতারা হরেক রকম পণ্য, পিঠা, খেলনা, হস্তশিল্প সাজিয়ে রাখেন  এবং মেলায় আগত ক্রেতাদের নিকট বিক্রি করেন। মেলায় স্টলে অংশ নেওয়া উদ্যোক্তা শারমিন নিশি জানান, আমাদের স্টলে হেমন্ত থিম কেক, প্যান কেক, পাটিসাপটা, কেক পুডিং, মিনি টাভ কেক,  জার কেক, ব্রেপ ফিংগার, ডার্গ এবং হোয়াইট চকলেট সহ  নানা রকম পিঠার আয়োজন ছিল, যা সবাইকে মুগ্ধ করেছে। মেলায় স্টল দেওয়া সারদা বিউটিপার্লার এর উদ্যোক্তা তুলিকা দে জানান, হারেক রকম জুয়েলারি আইডেম, কসমেটিক্স, প্রসাধনী সামগ্রী তিনি তার স্টলে বিক্রয় করছেন।

অন্যদিকে মেলায় স্টলে অংশ নেওয়া চট্টগ্রাম থেকে আগত গোপী কালেকশন এর উদ্যোক্তা টুম্পা দাশ জানান, দেশী-বিদেশী শাড়ি, থ্রি-পিচ, জুয়েলারি আইটেম সুলভ মূল্যে পাওয়া যাচ্ছে তার দোকানে। এছাড়া সাত রং স্টলে বিভিন্ন ধরনের কাপড় নিয়ে পসরা সাজিয়েছেন উদ্যোক্তা জ্যাকলিন তনচংগ্যা। তিনি জানান, আমাদের পিনন-খাদি, থ্রিপিস, টপস, পাঞ্জাবী, ফতুয়া, বার্মিজ লুংগী, চন্দন, শীতের জন্য মাফলার, টুপি পাওয়া যাচ্ছে, এবং বিক্রি অনেক ভালো হয়েছে বলে তিনি জানান।

শেষে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও শিল্পকলা একাডেমির সভাপতি মুনতাসির জাহান এর সভাপতিত্বে এইসময় বক্তব্য রাখেন উৎসব উদযাপন পরিষদের আহবায়ক খোরশেদুল আলম কাদেরী, কাপ্তাই বিএন স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ কমান্ডার এম এ শাহ জালাল, কেপিএম এর এমডি প্রকৌশলী স্বপন কুমার  সরকার, কাপ্তাই সহকারি কমিশনার (ভূমি) মারজান হোসাইন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ নাছির উদ্দীন, চন্দ্রঘোনা খ্রীস্টিয়ান হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ প্রবীর খিয়াং,  কাপ্তাই থানার ওসি (তদন্ত) আকতার হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শাহাদাৎ হোসেন চৌধুরী, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু তাহের মাসুদ, বিশিষ্ট প্রাবন্ধিক আমিনুর রশীদ কাদেরী,
কাপ্তাই বিএন স্কুল এন্ড কলেজ এর উপাধ্যক্ষ এম জাহাঙ্গীর আলম, নুরুল হুদা কাদেরী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জয়সীম বড়ুয়া, শিল্পকলা একাডেমির যুগ্ম সম্পাদক মংসুইপ্রু মারমা, অনুষ্ঠান উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব নাট্যজন আনিছুর রহমান প্রমুখ।

এইসময় কাপ্তাই শিল্পকলা একাডেমির সদস্যরা সহ সহ দুর দুরান্ত থেকে আগত নানা শ্রেণী পেশার লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × one =

Back to top button