ব্রেকিংরাঙামাটিলিড

প্রতিবেশির হামলায় পিতা-পুত্র আহত

বাড়ির সীমানা প্রাচীর নিয়ে বিরোধের জেরে প্রতিবেশির হামলায় পিতা-পুত্র আহত হয়েছেন। হামলায় একই এলাকার মুজিবুর রহমান(৭০) ও তার ছেলে সাইফুর রহমান গুরুতর আহত হয়েছেন। এছাড়াও প্রতিবেশিদের ছোঁড়া ইটের আঘাতে মুজিবুর রহমানের স্ত্রীও আহত হয়েছেন বলে অভিযোগ করা হয়। রাঙামাটি শহরের তবলছড়িস্থ মিয়াজি পাহাড় এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

আহতদের রাঙামাটি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহত মুজিবুর রহমান চারজনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত আরো ২/৩জনকে আসামী করে কোতয়ালী থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগে জানা যায়,রাঙামাটি শহরের তবলছড়িস্থ মিয়াজি পাহাড় এলাকার মুজিবুর রহমানের বাড়ির সীমানা প্রাচীর থেকে প্রতিবেশি আবদুর রাজ্জাক ও তার পরিবারের সদস্যরা মাটি সরিয়ে নেয়। এতে বৃষ্টির কারণে যেকোনো সময় দেয়াল ধসে যাবার আশংকায় আবারো সেখানে মাটি ফেলে মুজিবুর রহমানের পরিবার। এই মাটি ফেলাকে কেন্দ্র করে আবদুর রাজ্জাক(৪৫), তার স্ত্রী সেলিনা আকতার(৪২), ছেলে তানভির ইসলাম অভি(২৫) ছরোয়ার আলম(৪০) পিতা মৃত মোঃ হানিফসহ বেশ কয়েকজন রবিবার সন্ধ্যায় মুজিবুর রহমানের বাড়িতে হামলা চালায় এবং অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করে।

হামলায় মুজিবুর রহমানের মাথায় মারাত্বক জখম হয়। তাকে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এছাড়াও হামলায় মুজিবুর রহমানের স্ত্রী ও ছেলে সাইফুর রহমানও আহত হয়। হামলাকারীরা তাদের জানে মেরে ফেলারও হুমকি দেয় বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়। পরেরদিন সোমবার দুপুরে মুজিবুর রহমানের বাড়িতে আবারো হামলা চালায় তারা। এসময় মুজিবুর রহমানের ছেলে সাইফুর রহমানের হাত ভেঙ্গে যায়।

এ ব্যাপারে ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ মিজানুর রহমান বাবু জানান, ঘটনার দিন আমাকে কেউ একজন ফোন করে বলেছিল। কিন্তু ত্রান আর রেশন কার্ড নিয়ে খুব বেশি ব্যস্ত। সারাদিন এই কাজ নিয়ে থাকি,বাসায় ফিরে ভোররাতে। অবশ্য ঘটনার পরে আর কেউ যোগাযোগ করেনি। আগামী কয়েকদিন পর থানায় বৈঠক হবে বলে জানতে পেরেছি। তখন ঘটনার আদ্যেপান্থ জানতে পারব।

কোতয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মীর জাহিদুল হক রনি জানান, দুই পক্ষই থানায় পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করছে। সামাজিকভাবে মিমাংসার জন্য বৈঠক হয়েছিল কিন্তু সমাধান হয়নি। ২/৩দিন পরে থানায় আবারো দুই পক্ষ নিয়ে বসব।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 × five =

Back to top button